ঢাকা : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, রবিবার, ৬:১৬ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > আর্জেন্টিনার বিপক্ষে অঘটনের স্বপ্নে বিভোর যুক্তরাষ্ট্র

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে অঘটনের স্বপ্নে বিভোর যুক্তরাষ্ট্র

লিয়নেল মেসির অনুপ্রেরণায় সিক্ত হয়ে বহুল প্রতীক্ষিত শিরোপা জয়ে যেখানে আর্জেন্টাইনরা দারুণ উজ্জীবিত ঠিক সেখানেই আগামীকাল সেমিফাইনালে অঘটনের জন্ম দিয়ে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র ফাইনালে খেলার স্বপ্নে বিভোর রয়েছে। দুই দলের স্বপ্নের মিশেলে শত কোটি ফুটবল ভক্ত দারুণ এক ম্যাচের আশা করতেই পারে। ইতোমধ্যেই গ্রুপ পর্বের কঠিন চ্যালেঞ্জ ও কোয়ার্টার ফাইনালে ইন-ফর্ম ইকুডরকে হারিয়ে প্রাক টুর্নামেন্ট লক্ষ্য অর্থাৎ শেষ চারে খেলার মিশন পূরণ করেছেন স্বাগতিক কোচ ইয়র্গেন ক্লিন্সম্যান।

কিন্তু হলুদ কার্ডের কারণে মূল একাদশের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে কাল হাউস্টোন এনআরজি স্টেডিয়ামে পাচ্ছেন না ক্লিন্সম্যান। সে কারণেই টুর্নামেন্ট ফেবারিট আর্জেন্টিনার বিপক্ষে মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে নিজেদের নিয়েই বেশি ভাবতে হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রকে। সাম্প্রতিক প্রীতি ম্যাচগুলোতে দলের পারফরমেন্স দারুণ আশাবাদী জার্মান বিশ্বকাপ জয়ী দলের এই সদস্য। বিশেষ করে জার্মানী ও নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে এ্যাওয়ে ম্যাচের পারফরমেন্সের পাশাপাশি ২০১৪ সালে বিশ্বকাপের ফর্ম বিবেচনায় ক্লিন্সম্যান আত্মবিশ্বাসী হতেই পারেন।

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে ক্লিন্সম্যান বলেছেন, ‘কোপা আমেরিকায় আমাদের জয়ী না হওয়ার কোন কারণই নেই। গত দুই বছরে আমরা সারা ইউরোপা জুড়ে বেশ কয়েকটি কঠিন প্রীতি ম্যাচ খেলেছি, মেক্সিকোতেও খেলা হয়েছে। এর মধ্যে এ্যাওয়ে ম্যাচগুলোতে জয় আমাদের আত্মবিশ্বাস শতগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।’ দুই বছর আগে ব্রাজিলে ক্লিন্সম্যানের দল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর নেতৃত্বাধীন পর্তুগালকে ও হাই রেটেড ঘানাকে বিদায় করে জার্মানীর সাথে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে। বিশ্বকাপে তাদের গ্রুপটিকে ‘গ্রুপ অব ডেথ’ এর তকমা দেয়া হয়েছিল। ক্লিন্সম্যান বলেন, আমাদের মনে করার কোন কারণ নেই আর্জেন্টিনা আমাদের থেকে বড় দল।

দুই বছর আগে রোনালদোর নেতৃত্বাধীন পর্তুগালকে ৯৬ মিনিট পর্যন্ত লড়াই করে ২-১ গোলে এগিয়ে থাকার পরে ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছিল। আমরা সেসময় অনেককে বিস্মিত করেছিলাম। কেউ আশা করেনি ব্রাজিলে আমরা গ্রুপ পর্ব পেরুতে পারবো। পর্তুগাল ও ঘানাকে পিছনে ফেলেছি। নক আউট পর্বে অনেক কিছুই হতে পারে। এখানে যেকোন দলেরই ৫০-৫০ সুযোগ থাকে। সাসপেনশনের কারণে কাল ক্লিন্সম্যান দলে পাচ্ছেন না দূর্দান্ত ফর্মে থাকা মিডফিল্ডার জার্মেই জোনস, প্লেমেকার আলেহান্দ্রো বেডোয়া ও হামবুর্গের স্ট্রাইকার ববি উডকে। তিনজনই এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জন্য নিজেদের দারুণভাবে প্রমাণ করেছেন। বিশেষ করে আক্রমণভাগে অভিজ্ঞ ক্লিন্ট ডিম্পসের সাথে উড ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। আর মধ্যমাঠের প্রাণ ছিলেন জোনস।

ক্লিন্সম্যান দলের আন্ডারডগ মানসিকতাকে পিছনে ফেলে শুধুমাত্র ম্যাচের উপর মনোনিবেশ করার পরামর্শ দিয়েছেন। তবে সবকিছুর পরেও চার ম্যাচে ১৪ গোল করা আর্জেন্টিনাই যে ম্যাচে এগিয়ে থাকবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ৪-১ গোলের জয়ে মেসির অসাধারণ পারফরমেন্স সবাই দেখেছে। ওই ম্যাচেই ৫৪ তম আন্তর্জাতিক গোল করে সাবেক কিংবদন্তী গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতার সাথে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন মেসি।

যদিও স্বাগতিক সমর্থকদের সামনে ম্যাচটি খুব একটা সহজ হবে না বলেই মেসি সতর্ক করেছেন। তার মতে, আমরা সঠিক পথেই আছি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থকদের সামনে খেলাটা বেশ কঠিন হবে। শারীরিকভাবেও তারা বেশ শক্তিশালী। তাদের খেলতে দিলে যেকোন ধরনের অঘটন তারা ঘটিয়ে ফেলতে পারে।

এ সম্পর্কিত আরও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *