১৫ কোটি ডলার পেলেই সরে দাঁড়াবেন ট্রাম্প

প্রকাশিতঃ জুন ২০, ২০১৬ at ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ

ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবেই নিজের পরিচয় দিতে ভালোবাসেন। রাজনীতিটাও তার জন্য এক ধরনের ব্যবসা। সে কথা মাথায় রেখেই হয়তো ট্রাম্পের একজন সাবেক উপদেষ্টা বলে ফেললেন, হাতে পনেরো কোটি ডলার নগদ তুলে দিলে ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াবেন।

রিপাবলিকান নেতৃত্ব এই ভেবে শঙ্কিত, ট্রাম্প দলের প্রার্থী হলে শুধু তারা হোয়াইট হাউসই হারাবেন না, সিনেটে তাদের চলতি নিয়ন্ত্রণও ফস্কে যাবে। এই অবস্থায় তাকে বাদ দেয়ার নানা ফন্দি-ফিকির খোঁজা হচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে ট্রাম্পের একজন সাবেক উপদেষ্টা জিম ডরনান বলেছেন, দরদামে পড়তা হলে ট্রাম্প দলের নেতাদের সঙ্গে সমঝোতা করতে সম্মত হবেন। রিপাবলিকান দলের সমর্থক এমন একাধিক ধনকুবের সানন্দেই সে টাকা সংগ্রহে সাহায্য করবেন।

ট্রাম্প নিজে অবশ্য ক্ষোভের সঙ্গে এ ধরনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। তার প্রচারণা ব্যবস্থাপক করি লেয়ানডস্কি বলেছেন, ট্রাম্পকে টাকা দিয়ে কিনবে, এমন ধনবান কেউ নেই। কোনো অবস্থাতেই তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়াবেন না।

পোড়খাওয়া সাংবাদিকদের কেউ কেউ অবশ্য বলছেন, ব্যবসায়ী ট্রাম্প নিজের দাম বাড়াতে এখন ‘না না’ করছেন। সত্যি সত্যি যদি দলীয় সম্মেলনে তাকে বাদ দেয়ার চেষ্টা দানা বাঁধে, তিনি ‘চুক্তি’ করতেও পারেন।

এদিকে এনবিসি টিভির জনপ্রিয় কমেডি শো ‘লেট নাইট-এর উপস্থাপক সেথ মায়ার্স প্রস্তাব করেছেন, ট্রাম্প সরে দাঁড়ালে এই টিভি নেটওয়ার্কে তাকে ১৩টি অনুষ্ঠানের হোস্ট করা হবে। ঠাট্টা করেই কথাটা বলা। তবে অনেকেই মনে করেন, টিভি ব্যক্তিত্ব হিসেবে নিজের দর বাড়াতেই ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছিলেন। তিনি যে ১৬ জন বাঘা বাঘা রাজনীতিককে পরাস্ত করে দলীয় মনোনয়ন পাবেন, গোড়াতে নিজেই হয়তো তা বিশ্বাস করেননি।

এ সম্পর্কিত আরও