Mountain View

দিনাজপুরে বৃদ্ধ পিতা কুপিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে পুত্রদের বিরুদ্ধে

প্রকাশিতঃ জুন ২১, ২০১৬ at ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ

মোঃ আরিফ জাওয়াদ, দিনাজপুর:- দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মোকছেদ আলী (৬০) নামে এক বৃদ্ধকে ঘুমন্ত অবস্থায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে তার দুই পুত্রে’র বিরুদ্ধে। হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত দু’জন হলেন মোকছেদ আলীর বড় ছেলে আব্দুল মালেক ও ছোট ছেলে ইমরান। নিহত মোকছেদ আলী উপজেলার মমিনপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত অখির উদ্দিনের ছেলে।

২০শে জুন (সোমবার) দিনগত গভীর রাতে জেলার পার্বতীপুর উপজেলার মমিনপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ রাত ২টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে, বলে জানা যায়।

স্থানীয় সূত্র জানা যায়, মোকছেদ নিজের জমিজমা বিক্রি করে নিয়মিত জুয়া খেলতেন এবং বেশির ভাগ সময় হোটেলেই খাওয়া-দাওয়া করতেন। এ নিয়ে ছেলে আব্দুল মালেক, আশরাফুল ও ইমরানসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও তার ভালো সম্পর্ক যাচ্ছিল না।

নিহতের স্ত্রী আসমা খাতুন জানায়, “স্বামী মোকছেদ আলী (৬০) ১৯শে জুন (রবিরার) একই এলাকার মৃত্যু আফাজ উদ্দিনের পুত্র আব্দুল হামিদ ওরফে হাসনাত এর কাছে ৩১ শতক জমি ১২ লাখ ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। ইতো পূর্বেও তিনি ২৪ শতক জমি বিক্রি করে।”

আসমা খাতুন আরো জানায়, “তার স্বামী মোকছেদ আলীর ৭-৮ বিঘা (৬০শতক) জমি আছে। সে জমি বন্দক রেখে জুয়া খেলতো এবং বাহিরেই হোটেলে ভাত খায়ে বেড়ায়। বাড়ীতে কোন খরচ দেছলো না। তার তিন পুত্র মালেক ভ্যান চালক, আশরাফ ভাটায় কাজ করে সংসার চালায়। ছোট ছেলে এমরান প্রতিবন্ধী।”

জমি বিক্রির ঘটনায় বড় ছেলে আব্দুল মালেক ক্ষিপ্ত হয়ে ২০ই জুন (সোমবার) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে তার পিতাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায়, বুকে ও পাঁজরে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায় বলে, জানায় আসমা।

এ দিকে নিহতের বৃদ্ধা মা মাইশরী অভিযোগ করে বলেন, “আমার ছেলেকে ওরা মা বেটা মিলে হত্যা করেছে।”

পার্বতীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম বাংলানিউজকে জানান, মোকছেদ আলীর মাথায়, বুকে ও পাঁজরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হত্যার ধরন দেখে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে এবং একাধিক ব্যক্তি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে।

পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মাহমুদুল আলম জানান, মোকছেদ আলীর মাথায়, বুকে ও পাঁজরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

তবে ঘাতকদের গ্রেফতার এবং হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে, বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View