১০০ বিমান কিনছে ইরান

প্রকাশিতঃ জুন ২২, ২০১৬ at ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

ইরানের ওপর গত বছর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার পর থেকে তেহরান ও ওয়াশিংটন প্রায় চার দশকের তীব্র শত্রুতা পেছনে ফেলার চেষ্টা করেছ। মঙ্গলবার তার আরেকটি প্রমাণ দেখা গেল।যুক্তরাষ্ট্রের বিমান নির্মাতা বোয়িং ঘোষণা করেছে, তারা যাত্রীবাহী এক শ’ বিমান বিক্রির জন্য ইরানের রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থা ইরান এয়ারের সাথে একটি চুক্তি করেছে।
একশটি বোয়িং ৭৩৭ এবং ৭৭৭ বিমানের দাম পড়বে ২৫০০ কোটি ডলার।বোয়িং বলছে, ঐতিহাসিক এই বাণিজ্য চুক্তিতে সরকারি অনুমোদনের চেষ্টা শুরু করেছে তারা।দশকের পর দশক পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানের বিমান চলাচলব্যবস্থা ধসে পড়ার জোগাড় হয়েছিলো। ইরানএয়ার জানিয়েছে আধুনিকায়নের অংশ হিসেবে তারা আগামী ১০ বছরে ৪০০ থেকে ৫০০ বিমান কিনবে।

এই ঘোষণার পর পশ্চিমা বিমান নির্মাতারা ব্যবসা পেতে উঠে পড়ে লেগেছে।তবে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিকদের একাংশের মধ্যে ইরানের সাথে ঘনিষ্ঠতার ব্যাপারে আপত্তি সন্দেহ এখনো প্রবল। ফলে বোয়িংয়ের পক্ষে এই চুক্তি বাস্তবায়ন সহজ হবেনা।আমেরিকান ব্যাংকগুলো এখনো ইরানের সাথে লেনদেন করতে পারছে না। এই বিধিনিষেধ না উঠলে ইরান কিভাবে বোয়িংকে টাকা দেবে, সে প্রশ্নের এখনো সমাধান হয়নি।সম্প্রতি ইউরোপীয় বিমান সংস্থা এয়ারবাসের সাথেও ইরানের কোটি কোটি ডলারের একটি চুক্তি হয়েছে। কিন্তু সেই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রে আটকে রয়েছে, কারণ এয়ারবাসের কিছু যন্ত্রাংশ আমেরিকাতে তৈরি হয়।

এ সম্পর্কিত আরও