ঢাকা : ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, রবিবার, ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

শনিবার খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বর্ধিতাংশ উদ্বোধন করা হবে

khilgaw fly

রাজধানীর খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বর্ধিতাংশের (লুপ) নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী শনিবার (২৫ জুন) এর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বর্ধিতাংশের দায়িত্বে থাকা প্রকৌশলী হানিফ মুর্শিদ জানান, গাড়িতে ভ্রমণের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর এ অংশটি চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

খিলগাঁও ফ্লাইওভারের মূল নকশার ‘বর্ধিতাংশ’ বা ‘লুপ’ যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত হলে মালিবাগ রেলগেট থেকে রাজারবাগ পুলিশ লাইন যেতে ফ্লাইওভার থেকে নিচে নেমে বাসাবো ইউটার্ন দিয়ে ঘুরে আবার ফ্লাইওভারে গাড়ি ওঠাতে হবে না।

কিংবা ফ্লাইওভারের নিচ দিয়ে খিলগাঁও রেলগেট হয়ে যেতে হবে না।এলজিইডি’র তত্ত্বাবধানে এর নির্মাণ কাজ করেছে বেসরকারি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নাভানা কনস্ট্রাকশন।

চুক্তি অনুসারে ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বর্ধিতাংশের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভূমি অধিগ্রহণসহ নানা সমস্যার কারণে এক বছর বাড়ানো হয়। সে অনুসারে গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ছয় মাস অতিরিক্ত সময় লাগছে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করতে।

অবশ্য মূল কাজ শেষ হয় গত এপ্রিল মাসে। এরপরও দীর্ঘদিন ধরে ফ্লাইওভারের নিচের রাস্তা বন্ধ রয়েছে।  নাভানা কনস্ট্রাকশনের প্রজেক্ট ম্যানেজার কাজী শামীম আহমেদ বলেন, খিলগাঁও ফ্লাইওভারের লুপ নির্মাণস্থল রেলের ইঞ্জিন পরিবর্তনের কাছে হওয়ায় নির্মাণ কাজে সমস্যা হয়েছে। রেল কর্তৃপক্ষের বেধে দেওয়া সময়ে কাজ করতে হয়।

এছাড়া লুপের শেষ মাথায় শাহজাহানপুর বাজার থাকায় ভারি যন্ত্রপাতি প্রবেশে অনেক সময় লাগতো। এসব কারণে দুই দফায় সময় বাড়ানোর প্রয়োজন হয়েছে।

২০০১ সালের ১৫ জুন এলজিইডি’র তত্ত্বাবধানে মূল  খিলগাঁও ফ্লাইওভারের  নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এক দশমিক নয় কিলোমিটার দীর্ঘ এবং ১৪ মিটার প্রস্থ এ ফ্লাইওভার নির্মাণে ব্যয় হয় ৮১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। ২০০৫ সালের ২৩ মে ফ্লাইওভারটি উন্মুক্ত করা হয়।

ওই সময় ফ্লাইওভারটির মূল নকশা সম্পূর্ণ বাস্তবায়িত না হওয়ায় ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে ৬২০ মিটার দীর্ঘ বর্ধিতাংশের (লুপ) কাজ শুরু হয়। বর্ধিতাংশ নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৪৬ কোটি টাকা। নতুন লুপে ২৩টি পিলার ও ২২টি স্ল্যাব (ছাদ) স্থাপন করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

‍‘আগামী দিনে উন্নত বাংলাদেশ গড়বে এদেশের মেধাবী সন্তানেরা’

আমাদের মেধাবী সন্তানেরা আগামী দিনে বাংলাদেশ কে মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নত বাংলাদেশে এগিয়ে নিয়ে …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *