সাকিব-তামিমের জার্সি নাম্বারের রহস্য!

প্রকাশিতঃ জুন ২৪, ২০১৬ at ৭:৫৩ অপরাহ্ণ

ক্রিকেটের শুরু থেকেই ক্রিকেটারদের জার্সিতে নম্বরের প্রচলন ছিল নাা। এটি শুরু হয় ১৯৯৯ বিশ্বকাপের সময় থেকে। তখন প্রতিটি দলের অধিনায়কদের ১ নম্বর ও ২-১৫ পর্যন্ত হতো বাকি ক্রিকেটারদের জার্সি নম্বর।

প্রথম থেকেই এ পদ্ধতি থেকে একটু ব্যতিক্রম ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তৎকালীন অধিনায়ক হ্যান্সি ক্রোনিয়ের জার্সি নম্বর ছিল ৫। আর ১ নম্বর জার্সিটির মালিক ছিলেন কার্স্টেন।আর এখন তো ক্রিকেটাররা নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী জার্সি নম্বরের জন্য আবেদনও করেন টিম ম্যানেজম্যান্টের কাছে। অনেকে তাদের জার্সি নম্বরগুলো নিয়ে দুর্বলতাও রয়েছে। কেউ কেউ আবার নিজের জন্য লাকি নম্বরটিকেই জার্সি নম্বর হিসেবে পেতে চান।

বাংলাদেশের বিশ্বখ্যাত অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ৭৫ নম্বর জার্সি পরেন। এর পেছনে কিন্তু একটি রহস্য রয়েছে। তিনি যখন বিকেএসপিএত ছিলেন তখন তার ক্যাডেট নম্বর ছিল ‘ক্রিকেট ২৭৫’। সেই থেকেই তার জার্সি নম্বর ৭৫। তামিম ইকবাল এখন ২৮ নম্বর জার্সি পরে খেলেন। তবে তিনি প্রথম দিকে ২৯ নম্বর জার্সি পরতেন। আর ২৯ সংখ্যাটি ছিল তার জন্মদিনের তারিখ।

বাংলাদেশের তরুণ তারকা মুস্তাফিজুর রহমান ৯০ নম্বর জার্সি পরেন জাতীয় দলের হয়ে। এমনকি তিনি যখন আইপিএলে খেলেছেন তখনও তার একই জার্সি নম্বর ছিল। ইংল্যান্ডের কাউন্টি লিগেও তার জন্য একই নম্বরের জার্সি করা হয়েছে। এব্যাপারে তিনি নিজে কিছু না বললেও বোঝাই যাচ্ছে এটা যে কারণেই হোক তার প্রিয় একটি সংখ্যা।

এ সম্পর্কিত আরও