Mountain View

ইউরোর শেষ আটে জার্মানি

প্রকাশিতঃ জুন ২৭, ২০১৬ at ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ

গ্রুপ পর্বের খেলা দেখে আন্দাজ করা গিয়েছিল ঝুলি থেকে সব তাস বের করেননি জোয়াকিম লো। নক-আউট পর্বের জন্য শক্তিশালী অস্ত্রগুলো লুকিয়ে রেখেছিলেন। টুর্নামেন্ট গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে একে একে ট্রাম কার্ডগুলো কাজে লাগাবেন। আর সেই স্ট্র্যাটেজিতেই তছনছ হবে বিপক্ষ। ধারণাটা মোটেও ভুল ছিল না। শেষ ষোলোর লড়াই তার প্রমাণ। খোলস ছেড়ে বেরিয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মতোই খেললেন মুলাররা।

এদিন আন্ডারডগ হিসেবেই মাঠে নেমেছিলেন স্লোভাকিয়ার ফুটবলাররা। বিশ্ব সেরাদের বিরুদ্ধে যে লড়াইটা কঠিন হবে, তা প্রথম থেকেই জানতেন। তাই রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতেই শুরু করেছিলেন। কিন্তু সেই রক্ষণের প্রাচীর ভাঙতে বেশিক্ষণ সময় নিলেন না গোমেজরা। ৮ মিনিটে কর্নারকে কাজে লাগিয়ে দুরন্ত লং শটে বল জালে জড়ালেন বোয়াতেং। চার মিনিট পর ফের ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ এসেছিল। কিন্তু হতাশ করলেন মেসুট ওজিল।

একবার নয়, দু’বার। প্রথমবার পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ লো-এর অন্যতম বিস্বস্ত সৈনিক। দ্বিতীয়বার আরও একটা সহজ সুযোগ হাতছাড়া। ওজিল ব্যর্থ হলেও প্রথমার্ধে দলকে অক্সিজেন দিল গোমেজের গোল। ডানদিক থেকে বাড়ানো বল বক্সের ভিতর থেকে জালে ঠেলে দেন তিনি।

বল পজেশন থেকে গোলমুখি শট। ৯০ মিনিটই স্লোভাকিয়ার বিরুদ্ধে প্রত্যাশিতভাবে এগিয়ে ছিলেন মুলাররা। একটা সময় ম্যাচটা বেশ একপেশেই লাগছিল। কারণ জার্মান দুর্গ ভাঙার সেই তাগিদ বা আগ্রাসন স্লোভাকিয়ার ফুটবলারদের মধ্যে খুঁজে পাওয়া গেল না। পিছিয়ে থেকেও ঘুরে দাঁড়ানোর মরিয়া চেষ্টা খুব একটা নজরে পড়ল না। তাঁরা যেন ধরেই নিয়েছেন, দিনটা আজ জার্মানিরই। তবে ন্যুয়ার একটি বিশ্বমানের সেভ না করলে হয়তো ফল খানিকটা অন্যরকম হত।

গোৎজের পরিবর্তে এদিন ড্র্যাক্সলারকে খেলিয়েছিলেন লো। কোচের বিশ্বাসের মান রাখলেন তিনি। বিপক্ষের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দিলেন। সেই সঙ্গে নিশ্চিত হল জার্মানির শেষ আটের টিকিট। এবার লোয়ের ছেলেদের প্রতিপক্ষ ইতালি বা স্পেন। অর্থাৎ হাড্ডাহাড্ডি একটা কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ দর্শকদের উপহার দিতে চলেছে এবারের ইউরো।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View