ঢাকা : ২৫ জুন, ২০১৭, রবিবার, ৪:৪২ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

আইএসপিআরের পূর্ণ বিবৃতি

ispi

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁয় জিম্মিদের মধ্যে গতকাল শুক্রবার রাতেই ২০ জন বিদেশিকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)। তবে এঁরা কে কোন দেশের তা আজ দুপুর পর্যন্ত নিশ্চিত করেনি আইএসপিআর। এই ২০ বিদেশি নাগরিকের মধ্যে পাঁচজন নারী ছিলেন।

আজ শনিবার সেনা সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মিলিটারি অপারেশন্সের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাঈম আশফাক চৌধুরী এ তথ্য জানান। আইএসপিআরের পূর্ণ বিবৃতি কালের কণ্ঠের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

০১। আপনারা সকলে অবগত আছেন, গত ০১ জুলাই ২০১৬ তারিখ রাত প্রায় পৌনে নয়টায় রাজধানীর গুলশান-২ এর রোড নং ৭৯স্থ হলি আর্টিজান বেকারি নামক একটি রেস্টুরেন্টে দুষ্টকৃতিকারীরা গুরি ছুড়তে ছুড়তে প্রবেশ করে এবং রেস্টুরেন্টের সকলকে জিম্মি করে। ঘটনা ঘটার সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে পুলিশ কর্ডন করে সন্ত্রাসীদের যথেষ্ট কর্মকাণ্ড নিবৃত্ত করে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সেনাবাহিনীকে অভিযান পরিচালনার জন্য মাননীয় সরকার প্রধান কৃর্তক আদেশ প্রদান করা হয়। সে মোতাবেক বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ‘অপারেশন থান্ডার বোল্ট’ পরিকল্পনা করে। সেনাবাহিনী গতকাল রাত থেকে ঘটনাস্থলে অবস্থানরত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও  গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যদের কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে। সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে নৌ বাহিনী, বিমান বাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, র‍্যাবসহযোগে সম্মিলিতভাবে অপারেশন থান্ডার বোল্ড’ পরিচালনা করা হয়।

০২। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডোর নেতৃত্বে কমান্ডো অভিযানের মাধ্যমে ০৭৪০ ঘটিকায় অপারেশন শুরু করে ১২-১৩ মিনিটের মধ্যে সকল সন্ত্রাসীকে নির্মূল করে টার্গেট এলাকার নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে। পরবর্তীতে, অপারেশনের অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণ করে সকাল ০৮৩০ ঘটিকায় অভিযানের সফল সমাপ্তি ঘটে।  অভিযানের মাধ্যমে আমরা ৩ জন বিদেশি নাগরিকসহ মোট ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে সমর্থ হই। অভিযানে ৬ জন সন্ত্রাসী নিহত হয় এবং ১ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়াও, অভিযান শেষে তল্লাশীকালে ২০ জন বিদেশি নাগরিকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়, যাদের অধিকাংশকেই ধারালো অস্ত্রের মাধ্যমে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে সন্ত্রাসী কর্তৃক ব্যবহৃত ৪টি পিস্তল, ১টি ফোল্ডেড বাট একে ২২, ৪টি অবিস্ফোরিত আইইডি, ১টি ওয়াকিটকি সেট ও ধারালো দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এখানে উল্লেখ্য, অভিযানে অংশগ্রহণকারী সদস্যদের কেউ হতাহত হয়নি।

০৩।  আপনারা অবগত আছেন, গতকাল রাতের অপারেশনে অংশ নিয়ে ২ জন পুলিশ সদস্য শাহাদাৎ বরণ করেন। তারা সাহসিকতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলায় অংশ নেন। আমরা অকুতোভয় এই দুই সদস্যের রুহের মাগফিরাত কামনা করি। এছাড়া, এই অপারেশনে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী, বিমান বাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, র‍্যাব, ফায়ার সার্ভিস এর সদস্যবৃন্দ নিরলসভাবে সাহসিকতার সাথে অংশ নেন। সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় সার্বিক কৌশলের ব্যবহারের মাধ্যমে অতি দ্রুততার সাথে এই অভিযান সফল করার জন্য সকলকে কৃতজ্ঞতা জানাই। মাননীয় সরকার প্রধানের সময়োচিত, দৃঢ়, সাহসী সিদ্ধান্ত ও সঠিক দিক নির্দেশনার জন্যই এই অভিযান সফল হয়। তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনার অন্যান্য বিস্তারিত তথ্যাবলী যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধমে পরবর্তীতে  জানানো হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

‘ক্ষমতায় গেলে সে কথা মনে থাকবে তো?’

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের একটি ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি …