Mountain View

গুলশানে হামলা : যখন যা ঘটলো

প্রকাশিতঃ জুলাই ২, ২০১৬ at ৫:২৯ অপরাহ্ণ

dhaka_gulshan_attack_focusbangla_nocredit

অবসান হলো রাজধানীর ‘হলি আর্টিসান বেকারি’ রেস্টুরেন্টে জিম্মি সংকটের। গুলশানের ৭৯ নম্বর সড়কের ওই রেস্টুরেন্টে শুক্রবার (১ জুলাই) রাত ৮টায় সন্ত্রাসীরা বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে যে জিম্মি সংকটের সৃষ্টি করে, তা শেষ হয় শনিবার (২ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে। সংকটের সমাধানে অভিযান চালায় সেনা ও নৌবাহিনী এবং ৠাব ও পুলিশের সমন্বয়ে যৌথ বাহিনী। অভিযানের পর ঘটনাস্থল থেকে ১৩ জনকে জীবিত ও ৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ পর্যায়ে পুরো ১৩ ঘণ্টার অভিযানের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

রাত ৮টা (শুক্রবার)
রাত ৮টার দিকে রেস্টুরেন্টটিতে ঢুকে নির্বিচারে গুলি ছোড়ে একদল সন্ত্রাসী। খবর পেয়ে পুলিশ-ৠাব-বিজিবি ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। ছুটে যান ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান জোনের সহকারী উপ-কমিশনার (এডিসি) আহাদুল ইসলাম, বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাহ উদ্দিন খান ও গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলামসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা।

রাত ১০টা
ঘটনাস্থলে পৌঁছেই কর্মকর্তারা জানতে পারেন, রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়ে বিদেশি নাগরিকসহ বেশ কিছু লোককে জিম্মি করে রেখেছে সন্ত্রাসীরা। তৎক্ষণাৎ ওসি সালাহ উদ্দিন ও এসি রবিউল ইসলামসহ কর্মকর্তারা জিম্মিদের উদ্ধারে অগ্রসর হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তারা এগোতে থাকলে গুলি-বোমা ছুড়তে থাকে দুর্বৃত্তের দল। এতে গুলিবিদ্ধ হন সালাহ উদ্দিন ও রবিউলসহ বেশ কিছু পুলিশ সদস্য। তাদের উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল ও ইউনাইটেড হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে।

রাত সাড়ে ১১টা
খবর পেয়ে রাত সোয়া ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে যান র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনার শান্তিপূর্ণ সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। ভেতরে বেশ কয়েকজনকে জিম্মি করা হয়েছে। বেনজীর আহমেদ যখন কথা বলছিলেন তখন ঘটনাস্থলে পৌঁছায় স্পেশাল উইপন্স অ্যান্ড ট্যাক্টিকস (সোয়াট) টিম।

এর আগে, বন্ধ করে দেওয়া হয় কাকলী, বনানী, গুলশান ১ নং মোড়, নতুন বাজার, নর্দা থেকে গুলশান এলাকায় প্রবেশের সব পথ।

রাত ১২টা
রাত ১২টায় খবর আসে, গুলিবিদ্ধ হয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ওসি সালাহ উদ্দিন মারা গেছেন। তার কিছুক্ষণ পর আসে গুলিবিদ্ধ এসি রবিউলের মৃত্যুর খবরও। এরমধ্যে গুলশান ৭৯ নম্বর সড়কে বাড়তে থাকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি।

এ সম্পর্কিত আরও