ঢাকা : ১৭ অক্টোবর, ২০১৭, মঙ্গলবার, ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / দিনাজপুরে স্ত্রী ও শিশু পুত্রকে হত্যা করল পাষান্ড পিতা

দিনাজপুরে স্ত্রী ও শিশু পুত্রকে হত্যা করল পাষান্ড পিতা

প্রকাশিত :

মোঃ আরিফ জাওয়াদ, দিনাজপুর:- দিনাজপুরে স্ত্রী ও শিশু পুত্রকে জবাই করে হত্যার অভিযোগে শিশু পুত্রটির পিতা সোহরাব আলী ভুট্টু (৩৫) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক ভুট্টু দক্ষিণ কোতয়ালীর ১০নং কমলপুর ইউপি’র দক্ষিণ জয়দেবপুর গ্রামের হেদায়েতুল্লাহ সরকারের পুত্র।

৩রা জুলাই (রবিবার) রাত পৌনে ১২টায় দিনাজপুর দক্ষিণ কোতয়ালী ১০নং কমলপুর ইউপি’র দক্ষিণ জয়দেবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সোহরাব আলী ভুট্টুর সাথে মাত্র ৫ বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় একই এলাকার আক্কাস আলীর কন্যা বকুল আক্তার (৩০) এর। তাদের ঘর আলো করে আসে এক পুত্র সন্তান বিজন বাবু (৪)। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরেই সোহরাব আলী নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। প্রায়ই সে নেশা করে বাড়িতে ফিরত। এ নিয়ে সংসারে বিবাদ-কলহ লেগেই ছিল।

৩রা জুলাই (রবিবার) দিবাগত রাত পৌনে ১২ টার দিকে সোহরাব আলী ভুট্টু নেশা করে বাড়িতে ফেরে। এ সময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সোহরাব আলী ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার স্ত্রী বকুল আক্তারকে হত্যা করে। এ সময় সন্তান বিজন বাবু বিষয়টি দেখে চিৎকার করে কাঁদলে তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে সে।

এ সময় বাড়ি’র অন্যান্য লোকজন টের পায় এবং ঘাতক সোহরাবকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুট্টুকে আটক করে।

ঘাতকের মা শরিফা বেওয়া ও ঘাতকের ভাই আহসান হাবিব সরকার জানান, রাতের ঘটনাটি আঁচ করতে পারেননি তারা। হত্যার পর ঘাতকের মা ঘরে প্রবেশ করলে তাকেও হত্যা করতে উদ্যত হয় ঘাতক সোহরাব আলী।

এ দিকে দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজওয়ানুল রহিম বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশ দু’টি সুরতহালের পর ৪ঠা জুলাই (সোমবার) সকালে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ (দিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছিল।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

ইলিশ শিকারের দায়ে দৌলতপুরে ১৪জেলের কারাদণ্ড

এম আজাদ হোসেন মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: সোমবার ১৬ অক্টোবর যমুনা নদীতে সরকারি সিদ্ধান্ত অমান্য করে ইলিশ …