Mountain View

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিতঃ জুলাই ৫, ২০১৬ at ১০:২৪ অপরাহ্ণ

মোঃ সবুজ সরকার সৌরভ ঘাটাইল(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় আন্দিপুর গ্রামে সোমবার (৪ জুলাই) রাত ৯ টায় দুই সন্তানের জননী এক গৃহবধুকে জবাই করে হত্যা করেছে তার দেবর রুবেল ও আলিফ। গৃহবধুর নাম বন্যা খাতুন (২৫) বাড়ি আন্দিপুর গ্রামে। স্বামীর নাম রবিউল ইসলাম। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুরে নিহতের ভাই বাদী হয়ে ঘাটাইল থানার হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ ও নিহতের বড় ভাই মিন্টু জানায়, টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার আন্দিপুর গ্রামে সাবেক ইউপি মেম্বার মৃত ওমর আলীর মেয়ের সাথে ৮ বৎসর পূর্বে ময়মনসিংহ কোতয়ালী থানার খাগডহর গ্রামের মনোহারি দোকানদার রবিউল ইসলামের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই বখাটে দেবর রুবেলের লোলুপ কুদৃষ্টি পড়ে ভাবী বন্যা খাতুনের (২৫) উপর। এর ফলে মাঝে মধ্যেই ভাবিকে কু-প্রস্তাব দিতেন। বিষয়টি তার স্বামীকে জানালেও কোন কাজ হয়নি।

ঈদ উপলক্ষ্যে গত শুক্রবার (১ জুলাই) ঐ গৃহবধু স্বামীর বাড়ি থেকে তার বাবার বাড়ি আন্দিপুরে বেড়াতে যায়। এই সুবাদে গত সোমবার (৪ জুলাই) বখাটে দেবর রুবেল তার ভাবিকে ফোন করে জানান তাদের বাড়িতে ভাগ্নে আলিফসহ আরো কিছু লোকজন নিয়ে বেড়াতে আসবেন। কথামত ঐ দিন রাতে ঘাটাইল এসে ফোন করে ভাবিকে এগিয়ে নিতে বলেন। বাড়ি থেকে কিছুদূর এগিয়ে নিতে আসলে ফেরার পথে মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববতী একটি পাটক্ষেতে নিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে উপর্যুপরি ছুরি দিয়ে আঘাত করে, পরে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে নিহতের বড় ভাই মোমেন বাদী হয়ে রুবেল ও আলিফসহ অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনের নামে ঘাটাইল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বাকীর বলেন, থানায় মামলা হয়েছে এবং আসামীদেরকে ধরার জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও