ঢাকা : ২৫ জুলাই, ২০১৭, মঙ্গলবার, ৪:৫৩ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

ফিরে এসো সাদ্দাম!‌

saddam

বাগদাদের ফিরদদৌস স্কোয়ার থেকে সাদ্দাম হোসেনের মূর্তি ভাঙতে মার্কিন সেনার সঙ্গে হাত লাগিয়েছিলেন কাদিম শরিফ আল জাবৌরি। এখন তিনি সে কাজের জন্য দুঃখ পান। তিনি আবার সেখানে সাদ্দামের মূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে চান। দুঃখ করে তিনি বলেন, তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ আর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ব্লেয়ার ইরাকিদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।

সাদ্দাম পরিবারের মটর সাইকেল সারাতেন জাবৌরি। পরে তাকে জেলে ভরে সেনা। সাদ্দাম জমানায় তার পরিবারের ১৪–১৫ জনকে ফাঁসি দেয়া হয়। এতকিছুর পরও সেই সাদ্দামকেই আবার প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন জাবৌরি!‌

আসলে নিষ্ঠুর সাদ্দামের শাসন থেকে সে সময় বেরতে চাইছিল ইরাকবাসী। মার্কিন–ব্রিটেন সেনা তাঁদের সামনে আশার আলো দেখায়। ২০০৩ সালে সাদ্দাম জমানার পতনের পর তাই মার্কিন ফৌজকে স্বাগত জানিয়েছিলেন জাবৌরির মতো অনেকেই। অত্যাচারী সাদ্দামের মূর্তি ভেঙেই সেদিন রাগ মিটিয়েছিল বাগদাদবাসী।

এরপর পরিস্থিতি আরো ভয়ানক। ইরাকের একটা বড় অংশ দখল করে নেয় আই এস। নিরাপত্তার জন্য পরিবারকে নিয়ে বাগদাদ ছাড়েন জাবৌরি। কয়েক লাখ শরণার্থীর সঙ্গে এখন তিনি দিন কাটাচ্ছেন লেবাননের বেইরুটের এক ত্রাণ শিবিরে।

একদা কুস্তিগীর ও ভারোত্তলক জাবৌরি সাদ্দাম শাসনে মটর সাইকেল সারাতে বাধ্য হয়েছিলেন। আর এখন সেই কাজটাই করছেন পেটের তাগিদে। সাদ্দাম জমানার সঙ্গে এখনকার অবস্থার তুলনা টেনে তিনি বলেছেন, ‘‌তখন দুর্নীতি ছিল, হত্যা ছিল, লুঠতরাজ ছিল। সাদ্দাম মানুষ খুন করতেন। কিন্তু এখনকার নৃশংসতার তুলনায় তা নগন্য। সাদ্দাম গিয়েছেন। তার জায়গায় এসেছেন হাজার হাজার সাদ্দাম।’‌

এ সম্পর্কিত আরও