ঢাকা : ২৮ জুলাই, ২০১৭, শুক্রবার, ৯:১০ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / সারাদেশ / বগুড়ায় নিখোঁজের ৭ মাস পর যুবকের কঙ্কাল উদ্ধার

বগুড়ায় নিখোঁজের ৭ মাস পর যুবকের কঙ্কাল উদ্ধার

bogura (2)

তাজুল ইসলাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ নিখোঁজের প্রায় সাড়ে ৬ মাস পর গড়মহাস্থানের গোলাম রাসুল (১৮) নামের এক যুবকের কঙ্কাল গোকুল সেফটি ট্যাংক থেকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ । এঘটনায় এক যুবলীগ কর্মীকে আটকও করেছে পুলিশ । মহাস্থান প্রতিনিধি নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানায়, গত ২৮/১১/২০১৫ ইং নভেম্বর রোজ শনিবার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড় হযরত শাহ সুলতানের মাযার শরিফ ঈদগাঁহ মাঠ ময়দানে ৩দিন ব্যাপী বিরাট তাফসিরুল কোরঅান মাহফিলের ৩য় দিনে বৈরাগত বন্ধুদের সংঙ্গে ওয়াজ শোনার কথা বলে বাড়ী থেকে বের হয় এরপর থেকে তাকে অার খুজেঁ পাওয়া যায়নি।

এনিয়ে গত ২জানুয়ারী ২০১৬ইং নিরাপদ নিউজে একটি নিখোঁজের সংবাদও প্রকাশ করা হয়। এতে গোলাম রাসুলের মা লাকী বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে প্রতিনিধি কে জানান, গত ২৮ নভেম্বর শনিবার মহাস্থানে তাফসিরুল কোরঅান মাহফিল শেষে রাতে বাড়িতে না ফিরায় দুঃচিন্তায় তার ফোনে কল দিয়ে অবস্থান জানতে চাইলে সে বলে, মা অামার কোন চিনতা করোনা।

অামি ভালো অাছি বন্ধুদের সংঙ্গে অাছি তাদের গাড়িতে তুলে দিয়ে অামি বাড়ি ফিরবো। এরপর থেকে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায় । পরে তার বন্ধু বান্ধব, অাত্মীয় স্বজনসহ বিভিন্ন এলাকায় খোঁজা-খুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানান।

নিখোঁজ গোলাম রাসুলের পিতা মিঠু মোল্লা জানান, অামার ছেলে নিখোঁজের ৫ দিনপর খোঁজা-খুঁজি করে কোথাও না পাওয়ায় শিবগঞ্জ থানায় একটি জিডি করে ছিলাম। এর ধারাবাহিক কথায় অাজ রোববার, দুপুর ১টায় গোলাম রাসুলের বন্ধু অাবিদ নামের এক যুবলীগ কর্মীকে এলাকাবাসী অাটক করে গনঢোলাই দিলে গোলাম রাসুল হত্যার চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে অাসে। তার শীকারোক্তিতে জানা যায়, গোকুল ইউনিয়ন শাখার যুবলীগ নেতা একাধিক মামলার অাসামী অাকুল মন্ডল এই হত্যার প্রধান পরিকল্পনাকারী।

সন্ত্রাসী অাকুলসহ তার ক্যাডার বাহীনিরা তাকে হত্যা করে তার বাড়ি গোকুল উত্তারপাড়া ঈদগাহ মাঠের পাশে সেফটি ট্যাংকে লাশ গুম করে রাখে। পরে পুলিশ এসে সন্ত্রাসী অাকুলের বাড়ির সেফটি ট্যাংক থেকে নিহতের কঙ্কাল উদ্ধার করে বগুড়ার শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অাহসান হাবীব। তবে কি কারনে তাকে হত্যা করা হয়েছে তার সঠিক কারন নিশ্চিত করা যায়নি।

এ সম্পর্কিত আরও