ঢাকা : ২৬ জুলাই, ২০১৭, বুধবার, ৮:৩৩ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

রামপালে ১৩২০ মেগাওয়াট মূল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে চুক্তি

singinge

বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলায় এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াট মৈত্রী সুপার থারমাল পাওয়ার প্রজেক্ট বাস্তবায়নে মূল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।আজ (মঙ্গলবার) ১২ জুলাই সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি (প্রা.) লিমিটেড (বিআইএফপিসিএল) এবং ভারত হেভি ইলেকট্রিক্যালস লিমিটেডের (বিএইচইএল) মধ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রকিউরমেন্ট কনস্ট্রাকশন-ইপিসি (টার্নকি) চুক্তি সই হয়।

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহি চৌধুরী, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্যসচিব আবুল কালাম আজাদ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

বিএইচইএল’র জেনারেল ম্যানেজার প্রেম পাল যাদব এবং বিআইএফপিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক উজ্জ্বল কান্তি ভট্টাচার্য নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

১ দশমিক ৪৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের এ চুক্তির অর্থায়ন করবে ভারতীয় এক্সিম ব্যাংক। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হবে বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বানের মাধ্যমে প্রযুক্তিগত ও আর্থিক মূল্যায়নে সবচেয়ে উপযুক্ত বিবেচিত হওয়ায় বিআইএফপিসিএল ভারতীয় কোম্পানি বিএইচইএল’কে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য নির্বাচিত করে।

বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বাংলাদেশের বিদ্যুৎখাত তথা সার্বিক উন্নয়নে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

অত্যন্ত দক্ষতা সম্পন্ন যন্ত্রপাতির সমন্বয়ে পরিবেশগত কঠোর নিয়ম-কানুন অনুসরণ করে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পটিকে পরিবেশবান্ধব করার জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করা হবে। এছাড়া পরিবেশগত সুরক্ষা এবং স্থানীয় জনগণের জীবন-মানের উন্নয়নে বিআইএফপিসিএল স্বেচ্ছায় বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলাম, ভারতের বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের সচিব প্রদীপ কুমার পূজারী, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, ভারতের এনটিপিসি’র চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক গুরদীপ সিং, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিপিডিপি) চেয়ারম্যান শামসুল হাসান মিঞা উপস্থিত ছিলেন।

এ সম্পর্কিত আরও