ঢাকা : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, শুক্রবার, ২:০৬ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

দেশের প্রথম অ্যাথলেট হিসেবে সরাসরি অলিম্পিকে সিদ্দিকুর

এসময় অলিম্পিকে যেতে পারার অনুভূতি ব্যক্ত করে সিদ্দিকুর বলেন, ‘খুবই ভালো লাগছে। কেননা এই প্রথম বাংলাদেশ থেকে আমি ফুল কার্ড পেয়ে অলিম্পিকে যাচ্ছি। এটা অবশ্যই আনন্দের বিষয়। ফুল কার্ড পেয়ে অলিম্পিকে যাওয়া এটা অবশ্যই ভাগ্যের ব্যাপার।’

অলিম্পিকে অংশ নেতে সিদ্দিকুরের জন্য শর্ত ছিল জুলাইয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ৬০ এর মধ্যে নিজের অবস্থান ধরে রাখা। সেটা সিদ্দিকুর বেশ সফলতার সঙ্গেই পেরেছেন। কেননা বর্তমানে তার র‌্যাংকিং ৫৬।

২০১০ সালে বাংলাদেশের প্রথম গলফার হিসেবে এশিয়ান ট্যুরের শিরোপা জেতেন সিদ্দিকুর। দেশের হয়ে প্রথম গলফ বিশ্বকাপেও খেলেন তিনি সেই ধারাবাহিকতায় এবার দেশের প্রথম অ্যাথলেট হিসেবে সরাসরি অলিম্পিকে খেলতে যাচ্ছেন ৩১ বছর বয়সী এই গলফার।

প্রাপ্তির আনন্দে ভেসে যাওয়া এই গলফার  জানান, “অবশ্যই ভালো লাগছে। এটা আসলে অনেক আনন্দের বিষয়। বাংলাদেশের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে আমি অলিম্পিকে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছি। এটা অবশ্যই গর্বের। অতীতে বাংলাদেশের কেউ ফুল কার্ড (সরাসরি খেলার সুযোগ) পায়নি; এ কারণে আমি আরও বেশি আবেগাপ্লুত।”

অলিম্পিকে বাংলাদেশের অ্যাথলেটদের অংশগ্রহন অভিজ্ঞতা অর্জনেই সীমাবদ্ধ থাকে বরাবর। সিদ্দিকুর প্রতিশ্রুতি দিলেন সীমাবদ্ধতা থেকে বেরিয়ে আসার।“বাংলাদেশের অন্য অ্যাথলেটদের মতো আমার ক্ষেত্রে হয়ত ব্যাপারটা ওই রকম হবে না। আশা করি, আমি অলিম্পিকে গলফ উপভোগ করতে পারব।”

অলিম্পিকে দেশের জন্য কেমন ফলাফল বয়ে আনতে পারবেন বলে আশা করছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে সিদ্দিকুর জানলেন, ‘চাইলেই আমি সবকিছু করতে পারব না। আমি আমার কৌশল অনুযায়ী খেলবো। আমার কোচের পরামর্শকে গুরত্ব দেব। তবে, ফলাফল যা হবে সেটা মেনে নেব। আমার চেষ্টার ত্রুটি হবে না। আমি যদি খেলাটা উপভোগ করত পারি, তাহলে দেশকে ভালো একটি ফলাফল এনে দিতে পারবো আশা করি।’

সব কিছু ঠিক থাকলে আসছে ২ আগস্ট অলিম্পিকে অংশ নিতে ব্রাজিলের উদ্দেশে উড়াল দেবেন লাল-সবুজের গলফার সিদ্দিকুর রহমান।ব্রাজিলের রিও ডি জেনেইরোতে ৫ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ খ্যাত অলিম্পিক চলবে ২১ আগস্ট পর্যন্ত।

গত মে মাসে হওয়া মরিশাস ওপেনে দ্বিতীয় হওয়ার পর বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে ২৭৪তম স্থানে উঠে আসেন সিদ্দিকুর। বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এই অবস্থান তাকে অলিম্পিক র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫৪তম স্থানে নিয়ে এলে অলিম্পিকে খেলার সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়।

নিয়ম অনুযায়ী বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা ১৫ জনের মধ্যে প্রতি দেশ থেকে সর্বোচ্চ ৪ জন এবং সেরা পনেরোর পর প্রতি দেশ থেকে সর্বোচ্চ দুই জন অলিম্পিকে সুযোগ পাবেন। কোনো দেশের কোটা পূর্ণ হয়ে গেলে র‌্যাংঙ্কিংয়ের উপরের দিকে থাকলেও আর সুযোগ মিলবে না সেই দেশের অন্য গলফারদের।

বাংলাদেশের বাকি অ্যাথলেটদের অলিম্পিকে খেলার জন্য ভরসা ‘ওয়াইল্ড কার্ড’। এরই মধ্যে রিও দে জেনেইরো অলিম্পিকে খেলার জন্য ওয়াইল্ড কার্ড পেয়েছেন বাংলাদেশের শুটার আব্দুল্লাহ হেল বাকি, আর্চার শ্যামলী রায় এবং দুই সাঁতারু মাহফিজুর রহমান সাগর ও সোনিয়া আক্তার টুম্পা।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

স্মিথদের বাংলাদেশ সফরে আসা নিয়ে যা লিখলো টেলিগ্রাফ

স্পোর্টস ডেস্ক: জমছে নাকি বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট লড়াই। এর নানা খবর অস্ট্রেলিয়ার প্রভাবশালী দৈনিক …

Mountain View