Mountain View

শোলাকিয়ার লড়াকু মোর্শেদ

প্রকাশিতঃ জুলাই ১৩, ২০১৬ at ৯:৩৯ অপরাহ্ণ

police

শোলাকিয়ার সবুজবাগ মোড় পুলিশ চেকপোস্টে বোমা ও চাপাতি নিয়ে জঙ্গিদের অতর্কিত হামলায় নিহত হন দুই পুলিশ সদস্য জহিরুল ও আনসারুল। জঙ্গি এই হামলার পর হামলাকারীদের ধরতে তাৎক্ষণিক অভিযানে নামে পুলিশ। অসীম সাহসিকতার সঙ্গে চেকপোস্টেই তারা জঙ্গিদের রুখে দেন। জীবনবাজি রেখে তাদের প্রায় দুই ঘণ্টার অভিযান নির্বিঘ্ন করে শোলাকিয়ার ঈদ জামাত। শোলাকিয়ায় জঙ্গিদের হামলা শুরুর পর পুলিশের এই অভিযানের বেশকিছু ভিডিও এবং ছবি ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এর মধ্যে এক মিনিট পাঁচ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, ছয়জন বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ও হেলমেট পরা পুলিশ সদস্যকে পেছনে রেখে নীল পাঞ্জাবি ও জিন্স প্যান্ট পরিহিত এক পুলিশ কর্মকর্তা চায়নজি রাইফেল হাতে ঘটনাস্থলের মুফতি মোহাম্মদ আলী (রহঃ) জামে মসজিদ অতিক্রম করছেন। তিনজন পুলিশ সদস্যকে কাভারে রেখে মসজিদের পরের বাসাটির গেইটের সীমানা প্রাচীরকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে সন্ত্রাসীদের উদ্দেশে একের পর এক গুলি ছুড়ছেন।

গেইটের ভেতরে কিছুটা ঝুঁকে তাকে টার্গেট করে ছোড়া সন্ত্রাসীদের পাল্টা গুলি থেকে গা বাঁচাচ্ছেন। এর মধ্যে কয়েকটি গুলি বিপজ্জনকভাবে তার সামনে এসে পড়ে। এরপরও ঝুঁকি নিয়ে তিনি সমানে চালিয়ে যান এই বন্দুকযুদ্ধ। ভিডিওটির শেষদিকে ঘটনাস্থলের পতিত জায়গায় এক সন্ত্রাসীকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় পুলিশের ওপর হামলায় ব্যবহৃত নিহত সন্ত্রাসীর একটি চাপাতি তার পাশে পরেছিল।

শোলাকিয়া ঈদগাহে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে অসীম সাহসিকতার সঙ্গে নেতৃত্ব দেয়া এই পুলিশ কর্মকর্তার নাম মো. মোর্শেদ জামান। জঙ্গি সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও ঈদগাহ ময়দানে আগত মুসল্লিদের জানমালের নিরাপত্তা বিধানে দুই ঘণ্টার এই অভিযানে পুলিশ যে ৬৭২ রাউন্ড গুলি ব্যবহার করে এর মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হিসেবে দায়িত্ব পালনকারী এই পুলিশ কর্মকর্তা একাই ছুড়েছেন প্রায় ১০০ রাউন্ড গুলি। তার এই বীরত্বপূর্ণ ভূমিকার প্রশংসায় সরব ফেসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা। তারা বলছেন, মোর্শেদ জামানের এই সাহসিকতাপূর্ণ ভূমিকা পুলিশ বিভাগের মর্যাদাকে আরো ঊর্ধ্বে তুলে ধরেছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View