ঢাকা : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, বুধবার, ২:৫৪ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

লর্ডসে মুখোমুখি পাকিস্তান-ইংল্যান্ড

pak vs eng

পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড ক্রিকেটের তীর্থভূমি হিসেবে পরিচিত লর্ডসে মুখোমুখি হচ্ছে আজ। প্রথম টেস্টে কারা জিতবে, তা বলা একটু কঠিন। কারণ পাকিস্তান এর আগে দু’টি সিরিজ জিতেছে। তবে ২০১০ সালে ইংল্যান্ড সফরে তারা সিরিজ হারিয়ে ছিল। মোহাম্মদ আমের পাকিস্তান দলে ফিরে এসেছেন। প্রায় ছয় বছর তিনি ছিলেন সাসপেনশনে। এই লর্ডসেই তিনি তার ক্যারিশমা দেখিয়েছিলেন বল হাতে। প্রথম ইনিংসে তিনি ৮৪ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। তার সুইং অসাধারণ। তিনি যে ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলবেন, তা নতুন করে বলার কিছুই নেই। কারণ সামারসেটের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে প্রথম ইনিংসে মোহাম্মদ আমের ৩৬ রানে ৩ উইকেট নেন।

তবে তিনি সাথী হিসেবে যাদের পাচ্ছেন, তারা কতটা কী করতে পারেন তাই দেখার বিষয়। তার সাথে পাকিস্তানের বোলিং লাইনে আছেন ওয়াহাব রিয়াজ। বাঁ হাতি এই পেসার বেশ দ্রুততার সাথে বল করতে পারেন। এ ছাড়া আছেন সোহেল খান। তিনি যদি জ্বলে উঠতে পারেন, তাহলে পাকিস্তান সুবিধাজনক অবস্থানে যাবে। এ ছাড়াও আছেন লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহ। তিনি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো করবেন বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও পেসার ওয়াসিম আকরাম। ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে পাকিস্তান কিছুটা চিন্তিত আছে। তাদের ওপেনিং জুটি মোহাম্মদ হাফিজ ও শান মাসুদ শুরুটা ভালো করতে না পারলে চাপে পড়ে যাবে পাকিস্তান। তবে তাদের মিডল অর্ডারকে বলা হয় দলের প্রাণভোমরা। আছেন অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক। তিনি তার অভিজ্ঞতা ও মিডল অর্ডারে ভালো ব্যাট করার দৃঢ় ইচ্ছা প্রকাশ করবেন লর্ডসে। এ ছাড়াও আছেন ইউনুস খান ও আসাদ শফিক। দলের লম্বা ব্যাটিং লাইনআপে আরো আছেন সরফরাজ আহমেদ, আজহার আলী ও ওয়াহাব রিয়াজ।

অন্য দিকে ইংল্যান্ড দল তাদের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান নিয়ে কিছুটা সমস্যায় রয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জিতলেও উদ্বোধনী জুটি ভালো করতে পারেনি। বিয়ারস্টো তাড়াতাড়ি আউট হলে ইংল্যান্ডের মিডল অর্ডারকেই দায়িত্ব নিয়ে ব্যাট করতে হয়েছে। অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক ও অ্যালেক্স হেলসের ওপর নির্ভর করে ইংলিশদের ব্যাটিং লাইনআপ। দলে ফিরে এসেছেন গ্যারি ব্যালান্স। তবে দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান জো রুট মোটেই ভালো করতে পারছেন না। তার দিনকাল খারাপ যাচ্ছে। জেমস ভিন্স ও মঈন আলী রয়েছেন ফর্মে। বোলিং লাইনআপে ইংল্যান্ড জেমস অ্যান্ডারসনকে ছাড়াই খেলতে নামছে।

এই লিডিং উইকেটটেকার তার কাঁধের ইনজুরিতে খেলতে পারছেন না। লর্ডস টেস্টে বেন স্ট্রোকসকেও পাচ্ছে না ইংল্যান্ড। সাইডলাইনে বসে থাকতে হচ্ছে তাদেরকে। ফলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২-০-তে সিরিজ জেতার পর মানসিক দিক দিয়ে ফুরফুরে মেজাজে রয়েছে কুক বাহিনী। অ্যান্ডারসনের পরিবর্তে ক্রিস ওকসকে দেখা যেতে পারে। তবে বোলিং লাইনআপে প্রধান ভূমিকা পালন করতে হবে স্টুয়ার্ট ব্রডকে। তিনি ট্রেন্টব্রিজ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৫ রানে ৮ উইকেট নিয়েছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ৬০ রানের বেশি করতে পারেনি। তিনি আশা করছেন, পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপে তিনি বড় ধরনের আঘাত হানবেন।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

received_1822119634731330

সাকিবের ধমকের মুখে আউট দিয়ে দিলেন আম্পায়ার!

স্পোর্টস ডেস্ক : আম্পায়ারের সঙ্গে বিবাদে জড়ালেন ঢাকা ডায়নামাইটসের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত …

Mountain View