ঢাকা : ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, শনিবার, ৮:৪৭ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের জমিতেই হবে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়: গণপূর্তমন্ত্রী

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ক্যাম্পাসের পাহাড়ি জমিতে হবে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
আজ শুক্রবার সকালে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সম্ভাব্য স্থান পরিদর্শনে এসে এ কথা জানান তিনি।
শুক্রবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ক্যাম্পাসে মেডিকেল স্টাফ কোয়ার্টার ও অধ্যক্ষের বাংলো সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকা ঘুরে দেখেন মন্ত্রী।
পরিদর্শন শেষে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, “এখানে প্রচুর জায়গা আছে। হিলটপ এরিয়াতে বিশ্ববিদ্যালয়টা করলে তা ‍দৃষ্টিনন্দন হবে। ফার্স্ট টাইম ইন বাংলাদেশ এটা। পাহাড়ের ওপর একটা দৃষ্টিন্দন বিশ্ববিদ্যালয় হতে পারে।”
পাহাড়ি এলাকার পরিবেশ ও গাছপালা ঠিক রেখেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ করা হবে বলে জানান তিনি।
পরিদর্শনে উপস্থিত বিএমএ চট্টগ্রামের সভাপতি মুজিবুল হক খান বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেলের মোট জমির পরিমাণ ৭৮ একর।
“ক্যাম্পাসেই ১৫ একর খালি জমি পাওয়া গেছে। এখানে সুন্দরভাবে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণ সম্ভব।”
কলেজ ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয় নির্মিত হলে তা শিক্ষার্র্থী ও সেবাপ্রার্থী- সবার জন্যেই ভালো হবে বলে মনে করেন চিকিৎসক সংগঠনের নেতা মুজিবুল হক খান।
এর আগে ১ জুলাই স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম চট্টগ্রাম মেডিকেল ক্যাম্পাসেই বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের ঘোষণা দেন।
ওইদিন নাসিম বলেন, চট্টগ্রামের সন্তান গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফের তত্ত্বাবধানে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হবে।
শুক্রবার পরিদর্শনের সময় ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ বলেন, “প্রকৌশলী ও স্থপতিরা বিবেচনা করে তাদের পর্যবেক্ষণ জানাবেন। সে অনুযায়ী পরিকল্পনা করা হবে।”
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আধুনিকায়নের বিষয়ে জানতে চাইলে মোশাররফ সাংবাদিকদের বলেন, “এ হাসপাতালের ধারণক্ষমতা মাত্র ৫০০। এটাকে আমাদের উন্নীত করতে হবে দুই হাজার থেকে চার হাজারে। সুতরাং আমরা এটার ক্ষমতা বৃদ্ধি করব এবং ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে গেলে আমাদের পুরনো যে ভবনগুলো আছে সেগুলো ভেঙে ২০ তলা পর্যন্ত করব।”
এ বিষয়ে মুজিবুল হক খান বলেন, প্রথমে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হবে। তারপর চট্টগ্রাম মেডিকেলের আধুনিকায়নের কাজ হাতে নেওয়া হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

নির্মাণের ৯ মাসের মধ্যেই ভেঙে পড়ল ব্রিজ

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় নির্মাণের ৯ মাসের মধ্যেই ভেঙে পড়েছে ব্রিজ। তবে ব্রিজটি কোন দপ্তর থেকে নির্মাণ …

Mountain View