ঢাকা : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৩ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

দুই চ্যালেঞ্জের মুখে সাইফুদ্দিন

saifuddin

আগামী সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে বাংরাদেশ ক্রিকেটে বোর্ডের (বিসিবি) হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ক্যাম্প। এ ক্যাম্পে প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে খেলা মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। এইচপিতে সুযোগ পেয়ে খুশি ডানহাতি এই পেস অলরাউন্ডার।

গত মাসে শেষ হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে ক্রিকেট কোচিং স্কুলের (সিসিএস) হয়ে খেলেছিলেন সাইফুদ্দিন। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে তার বিরুদ্ধে বোলিং অ্যাকশনে ত্রুটি ধরা পড়েছিল। যদিও এখনো তার বিপক্ষে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি। তবে নিজের অ্যাকশন নিয়ে আশাবাদী তরুণ এই অলরাউন্ডার। এটাকে বাড়তি চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার মিরপুরের বিসিবি একাডেমি ভবন মাঠে ঘাম ঝরিয়েছেন এই ডানহাতি পেস অলরাউন্ডার। সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলা এ ক্রিকেটার তাকিয়ে আছেন এইচপি ক্যাম্পের দিকে।

আগামী রোববার থেকে শুরু হচ্ছে এইচপি ক্যাম্প। ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার আগে নিজের ফিটনেসকে একটু ঝালিয়ে নিতে শুক্রবার বিসিবির একাডেমী মাঠে এসেছিলেন সাইফুদ্দিন। পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সন্দেহের মধ্যে আছি। তবে এখনো তা প্রমাণিত হয়নি। আমার বোলিংয়ের ফুটেজ তারা দেখবে। যদি দেখে সমস্যা আছে তাহলেই কেবল কাজ করবে। আশা করি কোনো সমস্যা হবে না। তবে এটা আমার জন্য বাড়তি এক ধরণের চ্যালেঞ্জ।’

নেতিবাচক ভাবনায় আচ্ছন্ন না হয়ে এখন কেবল এইচপি ক্যাম্প নিয়ে ভাবতে চান সাইফুদ্দিন। ৯ সপ্তাহের ক্যাম্পে অভিজ্ঞ কোচদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে চান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ইনজুরির কারণে প্রিমিয়ার লিগে সব ম্যাচ খেলতে পারিনি। পারফরম্যান্স সেভাবে দেখাতে পারিনি। তারপরও বিসিবি আমাকে এইচপিতে সুযোগ দিয়েছে, চেষ্টা করবো যতটা শিখে নেয়া যায়। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে হাই লেভেলের কোচ থাকবেন, তাদের কাছ থেকে যতটা পারি শেখার চেষ্টা করব।’

এইচপি ক্যাম্পে অনেক সিনিয়র ক্রিকেটার আছেন। এমনকি যারা বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়েও অনেক ম্যাচ খেলেছেন। তারা এইচপি ক্যাম্প থাকায় তাদের কাছ থেকেও বাড়তি কিছু শিখে নিতে চান সাইফুদ্দিন।

এ বিষয়ে ডানহাতি এ পেস অলরান্ডার বলেন, ‘অনূর্ধ্ব-১৯ এর গণ্ডি পেরিয়ে আমার টার্গেট ছিল এইচপিতে সুযোগ পাওয়া। এখানে ভালো কিছু করার ইচ্ছা তো অবশ্যই আছে। সিনিয়র খেলোয়াড়রাও আছেন। সাকলাইন সজীব, রনি (আবু হায়দার) ভাইরা আছেন। প্রিমিয়ার লিগের টপ পারফরমাররাও আছেন। ওনাদের কাছ থেকে যতটা অভিজ্ঞতা শেয়ার করা যায়। অনূর্ধ্ব-১৯ একটা লেভেল ছিল। এটা আরো বড় একটা লেভেল। তাই চেষ্টা থাকবে ভালো কিছু শেখা এবং নিজেকে সেভাবে প্রমাণ করা।’

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

বিতর্কে জড়িয়ে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লেন আল-আমিন

বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না আল-আমিনের। বিশ্বকাপের পর দিন কয়েক আগে ‘শৃঙ্খলা ভঙ্গের’ কারণ দেখিয়ে তাকে …

Mountain View