ঢাকা : ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, রবিবার, ৮:০১ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
রামোসই বাঁচালেন রিয়াল মাদ্রিদকে রাজধানীতে শিক্ষকের অমানবিক নির্যাতনে শিশু শিক্ষার্থী আহত মধ্যবর্তী নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বললেন ‘স্বপ্ন দেখা ভালো’ এখনো বেঁচে আছি, এটাই গুরুত্বপূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী আলাদা বিমান কেনার মতো বিলাসিতা করার সময় আসেনি: প্রধানমন্ত্রী চলছে স্প্যানের লোড টেস্ট দৃশ্যমান হতে চলেছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হতে পারে! ১৭ বছর বয়সী আফিফ নেট থেকে মাঠে অত:পর গেইলদের গুড়িয়ে দিলেন (ভিডিও) রংপুর জেতায় ছিটকে গেলো কুমিল্লা-বরিশাল আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইরাকে নিরাপত্তা বাহিনীর ১৯৫৯ সদস্য নিহত
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

শেরপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান,জেল ও জরিমানা

sherpur madok

মোঃজিহান মিয়া : – শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলায় ঔষধ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও মাদক বিক্রির দায়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ১৫ টি মামলায় মোট ৮৬ হাজার টাকা জরিমানা ও ২ জনকে জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। আজ শ্রীবরদী উপজেলার সদর ও ঝগড়ারচর বাজারে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মেহেদী হাসান ও সুমন্ত ব্যনার্জি।

এছাড়া মনজুর রহমান, আরাফাতুল আলম, শরীফ উল্লাহ, জাকির হোসেন, তামান্না শারমিন, কোহিনূর জাহান, মিজবাহুল আলম ভুঁইয়া, শেরপুর জামালপুর অঞ্চলের ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক সাখাওয়াত হোসেন রাজু ও মাদক নিয়ন্ত্রণের মাসুদুর রহমান তালুকদার উপস্থিত ছিলেন। এসময় আর্মড পুলিশ ও শেরপুর সদর থানার পুলিশের একটি দল সাথে ছিল।

ভ্রাম্যমান আদালতে ঝগড়ারচর বাজারে ড্রাগ এ্যাক্ট ১৯৪০ এর ২৭ ধারায় জয়েন উদ্দিন মেডিকেল হলের মালিক মোন্তাহার আলীকে ১০ হাজার টাকা, জান্নাত মেডিকেলের মালিক হাফিজুর রহমানকে ১০ হাজার টাকা, আশিক মেডিকেল হলের আবু রাসেলকে ১০ হাজার টাকা, আনোয়ার মেডিকেলের মালিক আনোয়ার হোসেনকে ৫ হাজার টাকা, নূর মেডিকেল হলের মালিক শাজাহান মিয়াকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় মেয়াদোত্তির্ণ ঔষধ বিক্রি ও নিষিদ্ধ ঔষধ বিক্রির দায়ে বিসমিল্লাহ মেডিকেল হলের মালিক ফখরুজ্জামানকে ১ হাজার টাকা জরিমানাসহ ১৫ দিনের বিনাশ্রম জেল দেয় ভ্রাম্যমান আদালত। একই বাজারের একতা ওয়েল মিলের মালিক আফসার আলীকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ৫৩ ধারায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা হয়। এদিকে শ্রীবরদী সদরের সাদিহা মেডিকেল হলের মালিক এরফানুল হককে ড্রাগ এ্যাক্ট ১৯৪০ এর ২৭ ধারায় ১০ হাজার টাকা, শামীম মেডিকেলের শামীম মিয়াকে ৫ হাজার টাকা, বাংলাদেশ মেডিসিনের মালিক এরশাদকে ৫ হাজার টাকা, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ৫৩ ধারায় আশিক মেডিকেলের আব্বাস আলীকে ৬ হাজার টাকা, মাসুদ মেডিকেলের মালিক আমিরুজ্জামানকে ৫ হাজার টাকা এবং সোহাগ মেডিকেল হলের মালিক শামসুল হককে ৬ হাজার টাকা এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫১ ধারায় সামসুল হককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা এবং এক মাদক ব্যবসায়ীকে ১ বছরের জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

ভ্রাম্যমান আদালত শেষে এক বিজ্ঞপ্তিতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বলেন, ভেজাল ও নিষিদ্ধ ঘোষিত সকল পণ্য ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের এ টাস্কফোর্স পরিচালনা অব্যাহত থাকবে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে অন্যান্য উপজেলা ও এলাকাগুলোতেও এ টাস্কফোর্স পরিচালনা করা হবে বলেও তিনি জানান।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

3-12-16-1

দরিদ্র সংসারে পূজার অসহায়ত্ব জীবন-যাপন

পাবনা সদর প্রতিনিধিঃ  পূজা রানী দাস। দরিদ্র পরিবারের প্রতিবন্ধী একটি মেয়ে শিশু। বাবা নিশিত দাস …

Mountain View