ঢাকা : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, রবিবার, ৭:২৯ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > লাইফস্টাইল > দাঁত ক্ষয় প্রতিরোধে ত্যাগ করুন এই অভ্যাসগুলো

দাঁত ক্ষয় প্রতিরোধে ত্যাগ করুন এই অভ্যাসগুলো

dat

আপনার কি প্রায়ই দাঁত ব্যথা করে? ঠান্ডা বা গরম খাবারে কি আপনার দাঁত শির শির করে? যদি আপনার উত্তর হয় হ্যাঁ তাহলে আপনি দাঁত ক্ষয়ের ঝুঁকিতে আছেন। যা অনেক অস্বস্তি ও ব্যথার সৃষ্টি করতে পারে। আপনি কি জানেন আপনার প্রাত্যহিক কিছু অভ্যাসের জন্যই আপনার দাঁত ক্ষয়ের সমস্যাটি হতে পারে? চলুন তাহলে সেই অভ্যাসগুলো সম্পর্কে জেনে নিই।

১. চিনিযুক্ত পানীয়ঃ
দাঁত ক্ষয় হওয়ার একটি প্রধান কারণ হচ্ছে চিনি, বিশেষজ্ঞরা এটি প্রমাণ করেছেন। যদি সুস্থ দাঁত চান তাহলে সফট ড্রিংক, সোডা, কৃত্রিম ফলের জুস পান করা থেকে বিরত থাকুন।

২. ভিটামিন ট্যাবলেট চিবিয়ে খাওয়াঃ
বেশীরভাগ ভিটামিন ট্যাবলেটই চিবিয়ে খাওয়া যায় এবং এগুলো স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। কিন্তু এগুলো যেহেতু এসিডিক প্রকৃতির হয় তাই নিয়মিত এই ট্যাবলেট চিবিয়ে খেলে দাঁত ক্ষয় হতে পারে।

৩. দাঁত কামড়ানোঃ
কারো কারো দাঁত কামড়ানোর বদঅভ্যাস থাকে। এর ফলে দাঁতের এনামেল ক্ষয় হয়ে যায় এবং পরিণামে দাঁতক্ষয় হয়।

৪. খুব জোরে দাঁত ব্রাশ করলেঃ
খুব জোরে জোরে দাঁত ব্রাশ করলে দাঁতের এনামেল নষ্ট হয়ে যায় এবং দাঁতের মূলও ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এই কারণে দাঁতে ছিদ্রও হতে পারে।

৫. অ্যালকোহল সেবনঃ
বেশিরভাগ অ্যালকোহল এসিডিক ধরণের হয়। তাই যারা নিয়মিত অ্যালকোহল সেবন করেন তাদের দাঁত ক্ষয় হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

৬. পেইন কিলার সেবনঃ
অনেক ব্যথানাশক ঔষধই লালার উৎপাদন কমিয়ে দেয়। ফলে মুখগহ্বর ড্রাই হওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। এর ফলে এনামেল ক্ষয় হতে শুরু করে। যার পরিণতিতে দাঁত  ক্ষয় হয়।.

এ সম্পর্কিত আরও