মানবতাবিরোধী অপরাধে জামালপুরের তিন রাজাকারের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিতঃ জুলাই ১৮, ২০১৬ at ৬:৫৪ অপরাহ্ণ

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের তিনজনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। অপর পাঁচ আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বেঞ্চ।
মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া আসামিরা হলেন: আশরাফ হোসেন, আবদুল হান্নান ও মো. আবদুল বারী। ফাঁসিতে ঝুলিয়ে বা গুলি করে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরা করা যাবে বলে জানিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।
আমৃত্যু কারাদণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন, শামসুল হক, এস এম ইউসুফ আলী, অধ্যাপক শরীফ আহমেদ ওরফে শরীফ হোসেন, মো. হারুন ও মো. আবুল কাসেম।
ট্রাইব্যুনালের এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ও তাপস কান্তি বল। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ মিজানুর রহমান, ব্যারিস্টার এহসান সিদ্দিকী ও অ্যাডভোকেট এন এইচ তামিম। পলাতক ছয়জনের পক্ষে ছিলেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী আবদুস সুবহান তরফদার।
গত বছরের ২৬ অক্টোবর এই আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ  ট্রাইব্যুনাল। আসামিদের বিরুদ্ধে আনা ৯২ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনে মুক্তিযুদ্ধকালীন হত্যা, গণহত্যা, আটক, অপহরণ, নির্যাতন ও গুমের সুনির্দিষ্ট মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটনের পাঁচটি অভিযাগ আনা হয়। মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে ১৯৬ পৃষ্ঠার দালিল প্রমাণ এবং ৪০ জন সাক্ষী ছিলেন।

এ সম্পর্কিত আরও