ঢাকা : ২৩ জুন, ২০১৭, শুক্রবার, ৪:১৪ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

পটুয়াখালীর বাউফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্লিপ প্রকল্পের অর্থ হরিলুট

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার স্কুল লেভেল ইমপ্রুভমেন্ট প্লান (স্লিপ) প্রকল্পের বরাদ্দকৃত অর্থ হরিলুটের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগে জানাযায়, ২০১৫/১৬ অর্থ বছরে বাউফল উপজেলায় ২৩৩ টি সরকারি পাথমিক বিদ্যালয় ৪০ হাজার টাকা করে মোট ৯৩ লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। উক্ত বরাদ্দকৃত টাকা দিয়ে শ্রেণি কক্ষ সজ্জিত করণ, শিক্ষা ও টয়লেট উপকরণ ক্রয়সহ ছোট খাটো মেরামত কাজ করার কথা। কিন্তু অধিকাংশ বিদ্যালয়ে নাম মাত্র কাজ দেখিয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক বরাদ্দকৃত সমুদয় টাকা উত্তলন করে নিয়েছে। আবার কোন কোন বিদ্যালয়ে কাজ আদৌ না করেই স্থানীয় শিক্ষা অফিসে ভূয়া বিল ভাউচার জমা দিয়ে সমুদয় টাকা তুলে নিয়েছে।
যে সমস্ত বিদ্যালয় থেকে এ জাতীয় অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে, সে সমস্ত বিদ্যালয় গুলো হচ্ছে, ৩৮ নম্বর তালতলি ভরিপাশা, ৩২ নম্বর উত্তর পাকডাল, ৩৫ নম্বর দক্ষিণ রাজাপুর, ৪৩ নম্বর রনভৈরব, ৫৭ নম্বর বালিয়া চাঁদপাল, ৬৭ নম্বর সন্যাসিকান্দা, ৭০ নম্বর দক্ষিণ বগা, ৫৫ নম্বর দক্ষিণ রাজনগর সকরারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
ওই সমস্ত স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি স্লিপ প্রকল্পের টাকা উত্তোলন করে ভাগ করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
তবে চার হাজার টাকা দিয়ে কাজের আলামত হিসেবে প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির জন্য ইস্পিকার ক্রয় করেছে বলে জানাযায়। বাকি টাকা ভুয়া বিল ভাউচার দিয়ে লোপাট করা হয়েছে। উক্ত অর্থ লোপাট হওয়ায় সংস্লিষ্ট বিদ্যালয়ের অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ বলে প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্ত করেছেন। তবে ওই সমস্ত অভিভাবকদের সন্তানেরা সংশ্লিষ্ট স্কুলে লেখাপড়া করে বলে তারা প্রকাশ্যে মুখ খুলেননা। উক্ত অভিযোগ সম্পর্কে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রঙ্গলাল রায় বলেন, উক্ত অভিযোগ সত্য নয়।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

সুবিধা বঞ্চিত রোজাদারদের পাশে দাঁড়াল আর্স্ট গ্রুপ

রংপুর ব্যুরো প্রতিবেদকঃ সেসময় ঠাকুরগাঁও জেলা জর্জ কোর্ট এলাকায় গিয়েছিলাম বিশেষ একটি সংবাদ সংগ্রহের লক্ষে। …

আপনার-মন্তব্য