Mountain View

দেশের সর্ববৃহৎ যাত্রীবাহী নৌযান এমভি পারাবত-১২ উদ্বোধন

প্রকাশিতঃ জুলাই ২০, ২০১৬ at ১০:২২ অপরাহ্ণ

parabot12

ঢাকা-বরিশাল নৌরুটে লঞ্চ পারাবত১২ এর উদ্বোধন করা হয়েছে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এ লঞ্চটি নিয়ে এসেছে মেসার্স রাবেয়া শিপিং কোম্পানি।আজ (বুধবার) ২০ জুলাই এ লঞ্চটি উদ্বোধন করেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।

ঢাকা-বরিশাল নৌরুটে ও ঢাকার নদী বন্দরে পারাবত-১২ লঞ্চটি দেশের সর্ববৃহৎ যাত্রীবাহী নৌযান বলে জানান পরিচালক ও ইঞ্জিনিয়ার আশিক ভূঁইয়া।তিনি জানান, লঞ্চটি ১২টি ওয়াটার ব্লাস্ট ওয়াটার পাম্প দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। এছাড়াও যাত্রী নিরাপত্তায় দেশে প্রথমবারের মতো কোন লঞ্চে অনস্কিন নেভিগেশন ক্যামেরা ও পর্যাপ্ত অত্যাধুনিক সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে।

কেরানীগঞ্জে অবস্থিত মাদারীপুর ডকইয়ার্ডে প্রায় দুই বছর ধরে চলে এর নির্মাণ কাজ। লঞ্চটির দৈর্ঘ্য ৩১০ ফুট ও প্রস্থ ৫২ ফুট। এতে জাপানের তৈরি পাঁচ হাজার অশ্ব শক্তির মেরিন প্রোপালশন ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়াও যাত্রী সুবিধায় লঞ্চে ছয়টি স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর রাখা হয়েছে।

প্রায় ১৫০০ যাত্রী ধারণ ক্ষমতার চার তলার এ লঞ্চে ২৯০টি কেবিন রয়েছে। এর মধ্যে ১০০টি এসি, ১৯০টি নন এসি একক ও ডাবল কেবিন ও সাতটি ভিআইপি কেবিন। ফার্স্ট ক্লাস ও বিজনেস ক্লাস কেবিনে রয়েছে সকল আধুনিক সুবিধা।

ভাড়ার বিষয়ে তিনি জানান, সরকারি ভাড়া সর্বনিম্ন আড়াইশ টাকা। কেবিন একক নন এসি ৮০০ ও এসি ৯০০ টাকা। ডাবল নন এসি ১৬০০ ও এসি ১৮০০ টাকা। অনলাইনে টিকেটের ব্যবস্থাও চালু করা হবে বলে জানান তিনি।

প্রতিটি কেবিনে থাকছে বিনোদনের জন্য এলইডি টেলিভিশন। ফাস্টফুড ক্যাফে ছাড়াও এ লঞ্চে রয়েছে মেডিসিন কর্ণার। এছাড়াও থাকছে পর্যাপ্ত টয়লেট ও বিনোদনের জায়গায়। সেবার মান বিষয়ে যাত্রীদের অভিযোগ শোনার জন্য সরাসরি মালিক পক্ষের একটি হটলাইন নম্বরও দেওয়া থাকবে।

তিনি আরও জানান, অন্য লঞ্চের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য ভিএইচএফ রেডিও স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়াও জিপিএস ব্যবহার করা হচ্ছে। দুযোর্গপূর্ণ আবহাওয়া ও নিরাপত্তার জন্য থাকছে একাধিক স্তরের তলদেশ। নিরাপত্তায় থাকছে ইকো সাউন্ডার।

প্রতিদিন ঢাকা থেকে রাত সাড়ে ৮টায় ছাড়বে এমভি পারাবত-১২। আর বরিশাল থেকেও একই সময় ছেড়ে ভোর ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে পৌঁছাবে। এ লঞ্চের বিজনেস ক্লাসে পাঁচ তারকা হোটেল মানের সার্ভিস সুবিধা রয়েছে।

পারাবতের ঢাকা-বরিশাল রুটে পাঁচটি ও ঢাকা-মাদারীপুর রুটে একটি লঞ্চ রয়েছে। পারাবত-১৫ নামের সর্ববৃহৎ আরো একটি লঞ্চ নির্মাণাধীন রয়েছে বলেও জানান আশিক।মের্সাস রাবেয়া শিপিং এর চেয়ারম্যান সহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, যাত্রী সেবাই আমাদের কাছে মুখ্য উদ্দেশ্য।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View