ঢাকা : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ৮:০২ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধে আইনি নোটিশ ‘রোহিঙ্গাদের অবারিত আসার সুযোগ দিতে পারি না’প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে ২১ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম দেশে এইচআইভি আক্রান্ত ৪ হাজার ৭২১ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানাজায় লাখো মানুষের ঢল,শেষ শ্রদ্ধায় শাকিলের দাফন সম্পন্ন ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৯৭ সংসদে রোহিঙ্গা ইস্যুতে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী বগুড়ায় জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানী সপ্তাহ ২০১৬ উদ্বোধন ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত অভিনয়েই নয় এবার শিক্ষার দিক দিয়েও সেরা মিথিলা শিশুদের ওজনের ১০ শতাংশের বেশি ভারী স্কুলব্যাগ নয়
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

ইউরোপ-আমেরিকায় রপ্তানি হচ্ছে নরসিংদীর লটকন

lotkon


  • লটকন চাষ নিয়ে নরসিংদীর এমন চিত্র দুই যুগ আগেও ছিল ভাবনার অতীত। কোথাও কোথাও বাড়ির আঙিনায় লটকনগাছ দেখা গেলেও বাজারে তেমন চাহিদা না থাকায় বাণিজ্যিকভাবে লটকন চাষের কথা ভাবত না কেউ। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে খাদ্য ও পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ এই ফলের চাহিদা বেড়েছে কয়েক গুণ। তাতে করে নিশ্চিত হয়েছে লটকনের ন্যায্যমূল্য। দেশের চাহিদা মিটিয়ে ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশেও এখন রপ্তানি হচ্ছে নরসিংদীর সুস্বাদু লটকন। অম্লমধুর লটকন চাষে পাল্টে গেছে নরসিংদীর গ্রামীণ জনপদের চিত্র। আকারে বড়, দেখতে হলদে মসৃণ আর স্বাদে সুমিষ্ট হওয়ায় এখানকার লটকনের চাহিদা আর সবাইকে ছাড়িয়ে। দেশবাসীর পাশাপাশি বিদেশিদেরও হৃদয় কেড়েছে এই মৌসুমি ফল। সেই কদরের সুবাদে দ্রুত বিস্তৃত হয়েছে লটকনের আবাদ। দাম ভালো পাওয়ায় স্বাবলম্বী হয়েছে অনেক চাষি।
  •  জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, নরসিংদীর শিবপুর, বেলাব ও রায়পুরা উপজেলায় উঁচু এলাকার লাল মাটিতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম ও খনিজ উপাদান বিদ্যমান থাকায় এই এলাকার মাটি লটকন চাষের জন্য খুবই উপযোগী। বিগত ২০১০ সালে জেলায় ৪৮৫ হেক্টর জমিতে লটকনের আবাদ হয়েছিল। কয়েক বছরের ব্যবধানে চলতি বছরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬২৫ হেক্টরে। বাণিজ্যিক চাষাবাদের আওতার বাইরেও বিক্ষিপ্তভাবে বিভিন্ন বাড়ির আঙ্গিনা ও পতিত জমিতে লটকনগাছ রয়েছে, যা কৃষি বিভাগের হিসাবের বাইরে।
  • কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, প্রতি হেক্টর জমিতে গড়ে সাড়ে ১৬ মেট্রিক টন লটকন উৎপাদিত হচ্ছে। সে হিসাবে চলতি বছর লটকন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে সাড়ে ১০ হাজার টন। এর বাজারমূল্য আনুমানিক অর্ধশত কোটি টাকা।
  • মার্চ মাসের দিকে লটকনগাছে ফুল আসে। গাছের গোড়া থেকে শুরু করে শাখা-প্রশাখা পর্যন্ত ঝুলন্ত মঞ্জরিতে থোকায় থোকায় ফল আসে। প্রতিটি পুষ্পমঞ্জরিতে পাঁচ থেকে পঞ্চাশটি ফল দেখা যায়। ফল পরিপক্ব হতে সময় লাগে চার থেকে পাঁচ মাস। ফলের রং হলুদ ও ভেতরে দুই থেকে পাঁচটি বীজ হয়। বীজের গায়ে জড়ানো রসাল অংশই ফলের শাস। জাতভেদে টক বা টক-মিষ্টি স্বাদের লটকন জুন, জুলাই ও আগস্ট মাসে বাজারে পাওয়া যায়।
  • শিবপুর, রায়পুরা ও বেলাব উপজেলার পাহাড়ি এলাকার লটকন বাগানগুলো এখন ফলময়। গাছের গোড়া থেকে ওপরের অংশের শাখা-প্রশাখা পর্যন্ত লটকন ফলে জড়িয়ে আছে। অন্যান্য ফলের মতো লটকন বাজারজাত করা নিয়েও ভাবতে হয় না চাষিদের। মৌসুমি ব্যবসায়ীরা বাগান থেকে লটকন লট ধরে কিনে নেন। অবশিষ্টগুলো চাষিরা নিজেরাই হাটে নিয়ে পাইকারি দরে বিক্রি করে।
  • ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে রায়পুরা উপজেলার মরজালে প্রতিদিন ভোরে বসে লটকনের সর্ববৃহৎ হাট। আশপাশের গ্রাম থেকে চাষিরা সাতসকালেই ঝুড়ি ভরে ভ্যানে করে লটকন বাজারে নিয়ে আসে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা স্থানীয় কৃষকদের কাছ থেকে লটকন কিনে ট্রাকবোঝাই করে নিয়ে যান।
  • যুক্তরাজ্যসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে লটকন রপ্তানি করেন শিবপুরের চৈতন্য গ্রামের লটকনচাষি ইমাম উদ্দিন সরকার বলেন, এক বছর লটকন চাষ করে যে টাকা আয় করা যায়, ১০ বছর ধান চাষ করেও তা সম্ভব নয়। বিদেশের মানুষ এখনো লটকন খেতে অভ্যস্ত নয়। তবে প্রবাসীদের মধ্যে এই ফলের চাহিদা ভালো।’
  • রোগ-বালাইয়ের তেমন সংক্রমণ না হওয়ায় লটকন চাষে খরচ কম ও ফলন ভালো। সাধারণভাবে এর বীজের চারপাশে জড়ানো শাসটুকু আমরা খেয়ে থাকি। তবে এই রসালো শাস দিয়ে তৈরি জুসও যথেষ্ট সুস্বাদু। খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ কম্পানিগুলো লটকনের জুস তৈরি করে বাজারজাত করার উদ্যোগ নিলে তা এই মৌসুমি ফলের চাষ বৃদ্ধিতে সহায়ক হতে পারে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

অভিনয়েই নয় এবার শিক্ষার দিক দিয়েও সেরা মিথিলা

জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে আরলি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে স্নাতকোত্তর করে সিজিপিএ-৪ পেয়েছেন। …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *