Mountain View

মোস্তাফিজকে দলে পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার : লুক রাইট

প্রকাশিতঃ জুলাই ২২, ২০১৬ at ৮:৩০ অপরাহ্ণ

হায়দরাবাদের থেকে ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা পাওয়া মোস্তাফিজ সাসেক্স থেকে পাবেন মাত্র সাড়ে ৩৪ লাখ!

স্পোর্টস ডেস্ক : আইপিএলে হায়দ্রাবাদকে দুহাত ভরে দিয়েছেন। তাই পুরো টূর্নামেন্ট জুড়ে ছিলেন আগ্রহের কেন্দ্রে। আর অধিনায়ক ওয়ার্নারের প্রধান অস্ত্র হিসেবে। যেকারণে সবসময়ই মোস্তাফিজকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন ওয়ার্নার। এবার দৃশ্যপটে লুকরাইট। সাসেক্স অধিনায়ক মোস্তাফিজে এতটাই মুগ্ধ যে পোস্ট ম্যাচ সংবাদ সম্মেলনে বলতে  দ্বিধা করেন নি যে তারমত বিশ্বসেরা বোলারকে দলে পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। কারণ বিশ্বের এমন কোন অধিনায়ক নেই যিনি ফিজকে দলে নিতে চাইবেন  না।  সবারই প্রথম পছন্দ এন মোস্তাফিজ। আমরা সৌভাগ্যক্রমে তাকে দলে নিতে পেরেছি। সেটার প্রতিদানও পেয়েছি প্রথম ম্যাচেই। প্লে অফের স্বপ্ন বাচিয়ে রাখতে জয়ের বিক্লপ ছিলো না।

আইপিএল মাতানো মোস্তাফিজুর রহমান তার বোলিং চমক দেখালেন ইংল্যান্ডে। সাসেক্স শার্কসের হয়ে ন্যাট ওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে অভিষেকেই করেছেন নজর কাড়া বোলিং। এসেক্স ঈগলসের বিপক্ষে দলকে ২৪ রানের জয় এনে দিতে ৪ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ। ৪ ওভার বল করে দিয়েছেন মাত্র ২৩ রান।

বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাতে চেমসফোর্ডের কাউন্টি গ্রাউন্ডে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ২০০ রান করে সাসেক্স। জবাবে ৮ উইকেটে ১৭৬ রানের বেশি তুলতে পারে নি এসেক্স। রানের গতি বেঁধে রাখার সঙ্গে উইকেট নিয়ে জয়ের নায়ক বাংলাদেশের মোস্তাফিজুর রহমানই।

এদিন বল হাতে নেওয়ার আগেই সাসেক্স সমর্থকদের উল্লাসে মাতান মোস্তাফিজ নিক ব্রাউনের ক্যাচ ধরে। প্রথম ৫ ওভারে ৫০ রান করা এসেক্সের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে বাধ সাধেন মোস্তাফিজ।


তার প্রথম ওভারে চার রানের বেশি নিতে পারে নি প্রতিপক্ষ। বাঁহাতি এই পেসারের তৈরি করা চাপেই পরের ওভারে রান বাড়াতে গিয়ে ফিরে যান টম ওয়েস্টলি।

রবি বোপারা আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন এসেক্সের। ছয় উইকেট হাতে থাকা দলটির শেষ ৫ ওভারে দরকার ছিল ৬৮ রান। মোস্তাফিজের তখনও তিন ওভার বাকি থাকায় তা ক্রিকেটে সবচেয়ে কঠিন কাজের একটি হয়ে দাঁড়ায়। সাসেক্সের অধিনায়ক শেষ সময়ের জন্য বাঁচিয়ে রেখেছিলেন মোস্তাফিজের ওভার। তার আস্থার প্রতিদান দিতে ভুল করেন নি কাটার মাস্টার।

ষোড়শ ওভারে বোলিংয়ে ফিরেই বোপারাকে(২৬ বলে ৩২) আউট করে ম্যাচ নিজেদের মুঠোয় নিয়ে আসেন মোস্তাফিজ। তার অসাধারণ সেই ওভারে দুই রানের বেশি নিতে পারেন নি এসেক্সের ব্যাটসম্যানরা।

অষ্টাদশ ওভারে তৃতীয় বলেই আঘাত হানেন মুস্তাফিজ। এবার বোল্ড হন জেমস ফস্টার। অপ্রতিরোধ্য বাঁহাতি এই পেসারকে ঠেকানোর সামর্থ্য ছিল না ক্যালাম টেইলরের। ওভারের শেষ বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন তিনি।

মোস্তাফিজের করা শেষ ওভারে ৩৫ রান দরকার ছিল এসেক্সের। প্রথম বলটি ডট দেওয়ার পর পরের বলে রায়ান টেন ডেসকাটেকে ফিরিয়ে দেন তিনি। এর পরের বলে এক এবং তার পরের বলে ৬ রান দেন তিনি। তবে মোস্তাফিজের শেষের দুই বল থেকে কোনো রানই দেন নি।

এর আগে আইপিএলে খেলার জন্য মোস্তাফিজ ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা পেয়েছিলেন ভারতের সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কাছ থেকে। কিন্তু এই কাটার মাস্টার সাসেক্সের হয়ে খেলে পাবেন মাত্র ৩০ হাজার পাউন্ড(যা বাংলাদেশি প্রায় সাড়ে ৩৪ লাখ টাকা)।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাতে আবারও সাসেক্সের হয়ে খেলবেন সারের বিপক্ষে।

 

এ সম্পর্কিত আরও