ঢাকা : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, শুক্রবার, ২:১০ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

সব টিকেট শেষ হয়ে গেল মুস্তাফিজের ম্যাচের!

নুমান আহমেদ : বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম সেরা চমক বাংলাদেশের বাঁহাতি পেস বোলার মুস্তাফিজুর রহমান ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট এবং রয়্যাল লন্ডন ওয়ান ডে কাপ টুর্নামেন্টে খেলার জন্য সাসেক্সে যোগ দিলেন। বাংলাদেশ বিমানের সরাসরি ফ্লাইটে গতকাল বুধবার ঢাকা থেকে লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে পৌঁছে মুস্তাফিজ চলে গেলেন সাসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের হেড কোয়ার্টার হোভ টাউনে। বৃহস্পতিবারই চেমসফোর্ডে এসেক্স ঈগলসের বিপক্ষে মাঠে নামছেন মুস্তাফিজ।

২০১৪ সাল থেকে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) এই দুই টুর্নামেন্টের আয়োজন করছে। এই টুর্নামেন্ট দুটিতে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের ১৮টি প্রথম শ্রেণির কাউন্টি দল নর্থ ও সাউথ গ্রুপে ভাগ হয়ে অংশ নেয়। গ্রুপ পর্যায়ে প্রতিটি দল মোট ১৪টি করে ম্যাচ খেলে। দুই গ্রুপের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ চারটি দল নিয়ে মোট আটটি দল নকআউট পর্বে খেলার সুযোগ পায়। গ্যালারিতে বসে মুস্তাফিজের জাদুকরী বোলিং দেখার জন্য অনেক আগেই ১৬ জুন লর্ডস  এবং ২২ জুলাই ওভালের আগাম টিকেট কিনেছিলাম। মুস্তাফিজ থাকবে না জেনেও ১৬ জুন সাসেক্স বনাম মিডলসেক্সের খেলা দেখার জন্য লর্ডসে গিয়েছিলাম।

বৃষ্টির জন্য সেই খেলাটি অবশ্য পণ্ড হয়ে যায়। তাই ফেইসবুক স্ট্যাটাসে মজা করে লিখেছিলাম, ‘নো মুস্তাফিজ নো ম্যাচ’। তবে এবার আর কোন শঙ্কা নেই। গতকাল হিথ্রো বিমানবন্দরে টার্মিনাল ফোরে গিয়ে মুস্তাফিজের সঙ্গে কথা বলে এসেছি। ২২ জুলাই ওভালে সারের বিপক্ষে সাসেক্সের খেলা দেখার জন্য আগাম গ্রুপ টিকেট কিনেছি। আমার জীবনসঙ্গিনী নীলু, অনুজপ্রতীম সাংবাদিক মোসলেহ উদ্দিন, বন্ধু সত্যব্রত দাস স্বপন এবং সাবেক কর্মস্থল ইমিগ্রেশন অ্যাডভাইজারি সার্ভিসের দুই সহকর্মী রবার্ট ফিলিপস ও ক্রিস কার্কল্যান্ডসহ ছয় জন আগামীকাল সাউথ ইস্ট লন্ডনের ওভাল স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে বসে খেলা দেখার সব প্রস্তুতি শেষ। কিন্তু গতকাল হিথ্রো বিমানবন্দরে মুস্তাফিজের সঙ্গে কথা বলে আসার পর দৃশ্যপটটা হঠাৎ করেই পাল্টে গেল। ফেইসবুকে মুস্তাফিজের বিমানবন্দরের ছবি সম্বলিত স্ট্যাটাস দেয়ার পর বিডিনিউজের প্রধান সম্পাদক অনুজপ্রতীম তৌফিক ইমরোজ খালিদী ছবি পাঠাতে বলেন। আজ সকালে আবার কথা হলো তৌফিকের সাথে। অনুরোধ করলেন, গ্যালারিতে বসে খেলা দেখে মুস্তাফিজ সম্পর্কে লিখতে। বললাম, আজ আমি খেলা দেখতে যাচ্ছি না। আমি তো খেলা দেখব আগামীকাল।এসেক্সের বিপক্ষে আজকের খেলা দেখতে যাচ্ছি না। তৌফিক বললেন, ঠিক আছে, আগামীকালই খেলা দেখে মুস্তাফিজ নিয়ে লেখা পাঠান।

 

তৌফিকের সাথে কথা বলার পরই দৃশ্যপট পাল্টে গেল। এসেক্সে ঈগলসের বিরুদ্ধে মুস্তাফিজের অভিষেক ম্যাচটি গ্যালারিতে বসে সরাসরি দেখার জন্য ছটফট করতে লাগলাম। কিন্তু এই ম্যাচের সব টিকেট তো অনেক আগেই বিক্রি হয়ে গেছে। তারপরও ভাবলাম, দেখা যাক, কোনভাবে গ্যালারিতে যেতে পারি কিনা। কথায় বলে, ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়। এসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের ওয়েবসাইট ঘেটে ফোন করলাম। রিসিপিশন থেকে বললো, টিকেট অফিস সকাল দশটায় খুলবে। জানতে চাইলাম, কোনোভাবে আজকের ম্যাচের টিকেট কেনা সম্ভব হবে কিনা। ভদ্রমহিলা জবাব দিল সব সিট বিক্রি হয়ে গেছে।

ভদ্রমহিলা জবাব দিল সব সিট বিক্রি হয়ে গেছে। দাঁড়িয়ে


খেলা দেখার কিছু টিকেট থাকতে পারে, দশটায় টিকেট অফিসে ফোন করে দেখতে পারো পাওয়া যায় কিনা। ঠিক করলাম, টিকেট পাওয়া গেলে এই বয়সেও স্টেডিয়ামে গিয়ে দাঁড়িয়েই খেলা দেখব। নীলু সায় দিয়ে বললো, দাঁড়িয়ে বিশ আর বিশ ৪০ ওভার খেলা না দেখে শুধুমাত্র মুস্তাফিজের বোলিং দেখলেই চলবে। বাকি সময়টা স্টেডিয়ামের রেস্তোরাঁয় বসে চা/কফি খেয়ে সময় কাটাব।

যেই কথা, সেই কাজ। ঠিক দশটা বাজতেই এসেক্স ক্লাবে ফোন করলাম। টিকেট অফিসে কল ডাইভার্ট হওয়ার পর জানতে পারলাম, আমি কিউতে ছয় নাম্বারে আছি। অনেকক্ষণ ধরে কিউতে অপেক্ষার পর আমার টার্ন আসলে টিকেট অফিসের অ্যাডভাইজার মিষ্টি গলায় বলল, সব সিটিং টিকেট বিক্রি হয়ে গেছে, স্ট্যান্ডিং টিকেট নিতে পারো। আমি তাকে করুণ কন্ঠে বললাম, দেখ, আমি স্ট্যান্ডিং টিকেটই নেব। কিন্তু তার আগে তোমাকে অনুরোধ করব, অনুগ্রহ করে আমাকে যদি কোনো উপায়ে সিটিং টিকেট দিতে পারো তাহলে আমি খুবই উপকৃত হবো। বয়সের কথা উল্লেখ করে বললাম, এই বয়সে আমার জন্য দাঁড়িয়ে খেলা দেখা অত্যন্ত কষ্টকর হবে। বরফ গলে গেল। ভদ্রমহিলা বললেন, হোল্ড করো, দেখি, তোমার জন্য কিছু করতে পারি কিনা। তারপর বললো, কয়েকজন একটু আগে তাদের টিকেট ফেরত দিয়েছে। তোমার কয়টি টিকেট লাগবে। আমি বললাম, দুটি হলেই চলবে। ঠিক আছে, তোমাকে দুটি টিকেটই দিচ্ছি। কোন স্ট্যান্ডের টিকেট, এই স্ট্যান্ড থেকে বোলিং অ্যাকশন ভালোভাবে দেখা যাবে কিনা জানতে চাইলাম, আরও বললাম, আমি বাংলাদেশের। আমাদের বোলার মুস্তাফিজ সাসেক্সের হয়ে তোমাদের দলের বিপক্ষে খেলবে, মুস্তাফিজের বোলিং দেখার জন্যই আমরা আজকের খেলা দেখতে আসছি। ভদ্রমহিলা জবাব দিল, হ্যাঁ, এই স্ট্যান্ড থেকে বোলিং অ্যাকশন ভালোভাবে দেখতে পাবে। তার এই বাক্য শেষ হতে না হতেই ‘মাই গড’ বলে স্বগোক্তি করে আমাকে বলল, দুটি টিকেটই চলে গেছে। অর্থ্যাৎ, অন্য অ্যাডভাইজাররা এই দুটি টিকেট বিক্রি করে দিয়েছে। আমি চরম হতাশ হয়ে পড়ি। এখন বোধ হয় স্ট্যান্ডিং টিকেট কিনে দাঁড়িয়ে খেলা দেখতে হবে। কিন্তু ভদ্রমহিলা বলল, অন্য একটি স্ট্যান্ডে একটি মাত্র টিকেট আছে। আমি বিলম্ব না করেই বললাম, ঠিক আছে, আমাকে একটি টিকেটই দাও। নীলুকে বাসায় রেখে একাই খেলা দেখতে যেতে হবে। খেলা শুরু হবে লন্ডন সময় সন্ধ্যা ৭টায় এবং বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায়। বিকেল ৫টার পর থেকে স্টেডিয়ামের রিভার গেইট এন্ট্রান্স থেকে আমার টিকেট সংগ্রহ করা যাবে।

মূলত ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট এবং রয়্যাল লন্ডন ওয়ান ডে টুর্নামেন্টের শেষ চারটি করে ম্যাচে খেলানোর জন্যই সাসেক্স বাংলাদেশের বিস্ময় বালককে উড়িয়ে নিয়েছে। মুস্তাফিজের সাসেক্সে খেলতে যাওয়ার কথা ছিল জুনের শুরুতে। কিন্তু মে মাসের শেষ দিকে আইপিএল থেকে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট নিয়ে ফেরেন মুস্তাফিজ। তাই যেতে পারেননি সময়মত।

এই অবস্থায় সাসেক্স মুস্তাফিজের বদলি হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার অলরাউন্ডার ডেভিড ভিসের সঙ্গে খণ্ডকালীন চুক্তি করে। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ফিজিও ও চিকিৎসকদের পরামর্শে মুস্তাফিজকে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। অন্য দিকে বাংলাদেশের এই দুর্লভ ক্রিকেট প্রতিভাকে চোটের কবল থেকে বাঁচাতে তাকে ইংল্যান্ডে না পাঠানোর পক্ষে প্রবল জনমত সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় মুস্তাফিজের সাসেক্সে খেলা অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। কিন্তু সাসেক্স ক্লাব মুস্তাফিজকে পাওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠে। কারণ টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট টুর্নামেন্টের এই পর্যায়ে তাদের পক্ষে কোনো ভালো বোলার সংগ্রহ করা সম্ভব হচ্ছিল না। অন্যদিকে ক্যারিবিয়ান লিগ সিপিএল শুরু হয়ে যাওয়ায় তাদের পক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার অল রাউন্ডার ডেভিড ভিসের চুক্তির সময় বাড়ানোও সম্ভব হয়নি। কারন, ভিসে বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস দলের পক্ষে সিপিএল এ খেলার জন্য আগেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন। মাঝখানে সাসেক্স শ্রীলংকান বোলার নুয়ান কুলাসেকারার শরণাপন্ন হয়েছিল। কিন্তু তাকেও চলে যেতে হয় শ্রীলংকায়।

দীর্ঘ পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষে ফিটনেস সার্টিফিকেট পাওয়ার পর সাসেক্স আশা করেছিল যে, ১৫ জুলাইয়ের ম্যাচে মুস্তাফিজকে পাওয়া যাবে। কিন্তু বিধি বাম, ভিসা জটিলতার কারণে মুস্তাফিজের ইংল্যান্ড আগমন আবারও বিলম্বিত হয়। এই অবস্থায় মুস্তাফিজের অনুপস্থিতিতে সাসেক্সকে কেবলমাত্র একজন বিদেশি খেলোয়াড় নিউজিল্যান্ড দলের রস টেইলরকে নিয়ে ১৫ জুলাইয়ের গুরুত্বপূর্ণ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি খেলতে হয়, যদিও ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট টুর্নামেন্টে প্রতিটি দল প্রতিটি ম্যাচে দুজন বিদেশি খেলোয়াড় নামাতে পারে। ১৫ জুলাইয়ের ম্যাচে হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে সাসেক্স মাত্র এক রানে হেরে যায়। সাসেক্স ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৩ রান সংগ্রহ করে। আর হ্যাম্পশায়ার ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান করে জিতে যায়। মুস্তাফিজ সাসেক্সের হয়ে খেললে তাদের সেদিন জেতারই সম্ভাবনা ছিল।

আজ বৃহস্পতিবার অভিষেক হলে মুস্তাফিজ ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্যায়ে মোট তিনটি এবং রয়্যাল লন্ডন ওয়ান ডে কাপ টুর্নামেন্টের মোট চারটি ওয়ান ডে ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন।

ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে সাসেক্সের পরের ম্যাচটি আগামী শুক্রবার সারের বিপক্ষে। ম্যাচটি হবে ওভালে। গ্রুপ পর্বে সাসেক্সের শেষ ম্যাচ ২৮ জুলাই, প্রতিপক্ষ গ্ল্যামারগন, ম্যাচটি হবে হোভে সাসেক্সের মাঠ দ্য ফার্স্ট সেন্ট্রাল কাউন্টি গ্রাউন্ডে।

রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপ টুর্নামেন্টে সাসেক্সের পরের ম্যাচ আগামী রোববার, প্রতিপক্ষ গ্লস্টারশায়ার আর ভেন্যু গ্লস্টারশায়ারের কলেজ গ্রাউন্ড। আগামী বুধবার নিজেদের মাঠে সাসেক্সের প্রতিপক্ষ হ্যাম্পশায়ার। ৩০ জুলাই শনিবার প্রতিপক্ষ সমারসেট, ভেন্যু-কাউন্টি গ্রাউন্ড, টনটন এবং ২ অগাস্ট কেন্টের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে খেলবে সাসেক্স।

সাসেক্স যদি এই দুটি টুর্নামেন্টের একটিতে অথবা দুটিতেই নকআউট পর্বে উঠতে পারে, তাহলে নকআউট পর্বে খেলার জন্য মুস্তাফিজের সাসেক্সে অবস্থানও দীর্ঘায়িত হবে। ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টের সাউথ গ্রুপে মোট ১৪টি ম্যাচের মধ্যে সাসেক্স ক্লাব ১১টি ম্যাচ খেলে ৪টিতে জয় পেয়েছে। বাকি ৭ ম্যাচের ৫টিতে হেরেছে, দুটি ম্যাচ হয়েছে পরিত্যক্ত। ফলে ১০ পয়েন্ট নিয়ে সাসেক্স তালিকার সপ্তম স্থানে রয়েছে। মুস্তাফিজের জাদুর পরশে আজকের ম্যাচটিসহ বাকি তিনটি ম্যাচ জিতলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে সাসেক্সের নকআউট পর্বে ওঠার উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে।

musta

 

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

স্মিথদের বাংলাদেশ সফরে আসা নিয়ে যা লিখলো টেলিগ্রাফ

স্পোর্টস ডেস্ক: জমছে নাকি বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট লড়াই। এর নানা খবর অস্ট্রেলিয়ার প্রভাবশালী দৈনিক …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *