Mountain View

গুলশান ও শোলাকিয়া হামলাকারীদের সঙ্গে মিল রয়েছে কল্যাণপুরের জঙ্গিদের

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৬, ২০১৬ at ৬:০৯ অপরাহ্ণ

as


গুলশান ও কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার হামলাকারীদের সঙ্গে রাজধানীর কল্যাণপুরের জঙ্গিদের মিল রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “কল্যাণপুরের অভিযানে উদ্ধারকৃত বিস্ফোরক, জঙ্গিদের ব্যবহৃত পোশাক-আশাক এবং গুলশান ও শোলাকিয়ার হামলাকারীদের ব্যবহৃত বিস্ফোরক ও পোশাক-আশাকের মধ্যে মিল পাওয়া গেছে। আগের দুই ঘটনার সঙ্গে এদের সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে। তবে তদন্তের পরই বিষয়টি জানা যাবে।”

কল্যাণপুরে যৌথ বাহিনীর ‘স্টর্ম টোয়েন্টিসিক্স’ নামে অভিযানে নিহত জঙ্গিরা দুয়েকদিনের মধ্যে বড় ধরনের নাশকতা ঘটানোর পরিকল্পনা করছিল বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খান আরো বলেন, “গুলশান ও শোলাকিয়ার জঙ্গিরা মাদকাসক্ত ছিল বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় জঙ্গি নির্মূল হবে। জনগণের আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।”

মন্ত্রী বলেন, “কল্যাণপুরের মতো এ ধরনের অভিযান (ব্লক রেইড) চলতে থাকবে। যেখানে প্রয়োজন মনে করা হবে, সেখানেই এ ধরনের অভিযান চলবে।”

কল্যাণপুরের ৫ নম্বর রোডে ‘জাহাজ বিল্ডিং’ নামে পরিচিত সাততলা ভবনটিতে অভিযানে যান পুলিশের বিশেষায়িত দল সোয়াতের সদস্যরা। এ সময় ভবনের পঞ্চম তলা থেকে জঙ্গিরা ককটেল ছোড়ে। পরে ভবনটির আশপাশের এলাকা ঘিরে ফেলেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

জাহাজ বিল্ডিংয়ের পাশের ভবনগুলোর ছাদে অবস্থান নেয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ঘটনাস্থলের আশপাশের সবকটি সংযোগ সড়কেও ব্যারিকেড দেয় পুলিশ।

রাতভর পরিকল্পনার পর ভোর ৫টা ৫১ মিনিটে শুরু হয় ‘অপারেশন স্টর্ম টোয়েন্টিসিক্স’। ঘণ্টাখানেক মুহুর্মুহু গুলির শব্দে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। এরপর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ভবনের নিয়ন্ত্রণ নেন। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে নয় জঙ্গি নিহত হয়। আটক করা হয় এক সন্দেহভাজন জঙ্গিকে।

এ সম্পর্কিত আরও