আইসিসির হল অফ ফেমে প্রথম লঙ্কান ক্রিকেটার মুরালিধরন

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৭, ২০১৬ at ৬:৫২ অপরাহ্ণ

sl cricketer

অস্ট্রেলিয়ার বোলিং পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে পড়েছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড ও সমর্থকদের তোপের মুখে। এরই মধ্যে সুখবর! শ্রীলঙ্কার প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির হল অব ফেমে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন কিংবদন্তি স্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন।

ক্রিকেটের কিংবদন্তিদের অবদান স্মরণে ২০০৯ সাল থেকে হল অব ফেমের তালিকা প্রকাশ শুরু করেছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। ২০১৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ, জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কা ছাড়া সকল টেস্ট খেলুড়ে দেশের খেলোয়াড়ের নাম অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল এই হল অব ফেমে।

তবে এবার আফসোস ঘুচতে যাচ্ছে দলটির। কারণ শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট অঙ্গনকে গর্ব করার মতো এক মুহূর্ত উপহার দিলেন মুরালি। তাকে দিয়ে আইসিসির হল অব ফেমে জায়গা করে নিলো শ্রীলঙ্কাও। এছাড়াও ইংল্যান্ডের জর্জ লোম্যান, অস্ট্রেলিয়ার আর্থার মরিস ও অস্ট্রেলিয়ার নারী ক্রিকেটার ক্যারেন রোল্টন চলতি বছরের হল অব ফেমে অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছেন।

চলতি বছরের হল অব ফেইমের অন্তর্ভুক্ত সাবেক ক্রিকেটারদের নিয়ে আইসিসি প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন বলেন, ‘ভিন্ন যুগের সেরা খেলোয়াড়দের অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করেছি। মুত্তিয়া মুরলিধরন আধুনিক ক্রিকেটের মহান ক্রিকেটারদের একজন। এছাড়া লেহম্যান ও মরিস তাদের সময়ে অসাধারণ পারফর্মার ছিল। নারী ক্রিকেট যখন প্রতিযোগিতা পূর্ণ হয়ে ওঠে, তখন রোল্টনের পারফর্মেন্স মনে রাখার মত।’

জানিয়ে রাখা ভালো, এর আগে আইসিসির এই হল অব ফেমে ব্রায়ান লারা, শেন ওয়ার্ন, ওয়াসিম আকরাম, মার্টিন ক্রো, ফ্রাঙ্ক ওরেল, গ্যারি সোবার্স, ভিভ রিচার্ডস, ডেনিস লিলি, ইয়ান বোথাম, ডন ব্রাডম্যানদের মতো কিংবদন্তিরা অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।

এদিকে টেস্ট ও ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ড আছে মুরালির দখলে। ওয়ানডে এবং টেস্ট ক্রিকেটে উইকেট সংগ্রাহকের তালিকার শীর্ষে থেকে ২০১১ সালে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টানেন মুরালি। ১৩৩টি টেস্ট খেলে ৮০০টি উইকেট নিয়েছেন এই স্পিন জাদুকর। আর ৩৫০ ওয়ানডে খেলে পেয়েছেন ৫৩৪ উইকেট।

এ সম্পর্কিত আরও