নিহত জঙ্গিদের জন্য বিএনপি নেতাদের এতো দরদ কেনো!

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৮, ২০১৬ at ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ

shek hasina

জঙ্গিদের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের কোনো গোপন সম্পৃক্ততা আছে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
কল্যাণপুরে পুলিশি অভিযানে জঙ্গি মারা যাওয়ায় বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী এই প্রশ্ন উত্থাপন করেন।

তিনি বলেন, জঙ্গিদের জন্য বিএনপি নেতাদের এতো দরদ কেনো? জঙ্গিদের সঙ্গে তাদের কোনো গোপন ষড়যন্ত্র বা সম্পৃক্ততা আছে কি না এটা আমার প্রশ্ন।

গতকাল (বুধবার) ২৭ জুলাই) রাতে দশম জাতীয় সংসদের একাদশতম অধিবেশনের সমাপনী বক্তৃতায় এসব কথা বলেন সংসদ নেতা।এরপরই স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশন সমাপনী সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির আদেশ পাঠ করে শোনান এবং বাজেট অধিবেশনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কল্যাণপুরের প্রসঙ্গে বিএনপির দুই নেতা শাহ্ মোয়াজ্জেম ও হান্নান শাহ্ বলেছেন ‘কল্যাণপুরে নিহতরা জঙ্গি কি না সন্দেহ আছে’।

আমার প্রশ্ন- জঙ্গিদের জন্য বিএনপি নেতাদের এতো আহাজারি কেনো, তাদের জন্য এতো দরদ কেনো, বিএনপি নেতাদের কোথায় ব্যথা লাগলো। এই প্রশ্ন জাতির কাছে রেখে গেলাম।

তিনি বলেন, পৃথিবীর যেসব দেশে জঙ্গি হামলা হয়েছে পুলিশ জঙ্গিদের অন দ্যা স্পট গুলি করে হত্যা করেছে। জঙ্গি দমনের এটাই নিয়ম। জঙ্গিদের সঙ্গে বিএনপি কোনো গোপন সম্পৃক্ততা আছে কি না সেটাই দেখার বিষয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে সময় বাংলাদেশের মুখ বিশ্বব্যাপী উজ্জ্বল হচ্ছে-বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে ঠিক সেই সময় শুরু হয় জ্বালাও-পোড়াও। কেউ আটক হলে তদন্তে দেখা যায়, গোড়া একই জায়গায়।

তিনি বলেন, এর মধ্যে পহেলা জুলাই গুলশানে জঙ্গি হামলা হয়। তারপর গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে আমরা খবর পাই এ ধরনের হামলা আরও হতে পারে। আমি এটা জানিয়েছি। সেই ধরনের একটি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলো কল্যাণপুরের জঙ্গিরা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গি দমনে আমরা সারা দেশব্যাপী ব্লক রেড করি। ব্লক রেড’র অংশ হিসেবে কল্যাণপুরে গিয়ে জঙ্গিদের আস্তানা পাওয়া যায়। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যদি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারতো তাহলে আরও বড় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতো।

আমাদের পুলিশ বাহিনী বসে নেই। পুলিশ অভিযান চালালে তাদের ওপর ‘আল্লাহু আকবর’ বলে হামলা চালায় জঙ্গিরা।

এ সম্পর্কিত আরও