Mountain View

ভারতীয় বন্য হাতিটির অবস্থান এখন সরিষাবাড়ী চরে

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৮, ২০১৬ at ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

hati

জাহিদ হাসান সরিষাবাড়ী (জামালপুর) থেকে: ভারত থেকে বন্যার ভেসে আসা বন্য হাতিটি উত্তরা লের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বুধবার মধ্যরাত থেকে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার কামরাবাদ ইউনিয়নের চরাঞ্চলে অবস্থান নিয়েছে। হাতিটি আক্রমন চালিয়ে কয়েকটি বাড়িঘর ভাঙচুর করায় স্থানীয় জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার চরছিন্নায় টানা কয়েকদিন অবস্থানের পর বুধবার দিবাগত রাত প্রায় ৩টার দিকে হাতিটি যমুনা নদী পথে সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চরা লে আসে। সাতপোয়া ইউনিয়নের চর রৌহা, নান্দিনা ও ছাতারিয়া ঘুরে বৃহষ্পতিবার ভোররাতে কামরাবাদ ইউনিয়নের শুয়াকৈর গ্রামে প্রবেশ করে।

এ সময় স্থানীয় আতঙ্কিত লোকজন জড়ো হয়ে হৈ চৈ, টিনের শব্দ ও আগুন জ্বালিয়ে হাতিটি তাড়ানোর চেষ্টা করে। এতে হাতিটি দিগিবিদিক ছুটোছুটি করে কয়েকটি বাড়িঘর ভাঙচুর এবং বেশ কিছু গাছপালা ও ফসল বিনষ্ট করে। লোকজনের ধাওয়ায় ডিগ্রি পাচবাড়ি, শুয়াকৈর, বড়বাড়িয়াসহ কয়েকটি গ্রাম ঘুরে সর্বশেষ বৃহষ্পতিবার বিকাল পর্যন্ত হাতিটি চর বড়বাড়িয়া বিলে বন্যার পানিতে আশ্রয় নিয়েছে।

সারাদিন হাজার হাজার উৎসুক জনতা হাতিটি দেখতে বিলের পাশে জড়ো হয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম জানান, বন্য হাতি আক্রমন চালিয়ে তার একটি ঘরসহ শুয়াকৈর গ্রামের বুদু ও পাগু মিয়ার গোয়াল ঘর ভেঙে ফেলে। এছাড়া হাতিটি দিগি¦দিক ছুটোছুটি করায় ফসল ও গাছপালার ক্ষতিসহ লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

চরাঞ্চলে বন্যাদুর্গতদের দুর্ভোগের মধ্যে নতুন করে এলাকায় বন্য হাতি প্রবেশ করায় দুর্ভোগ আরো বেড়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। এ ব্যাপারে স্থানীয় বন বিভাগের কর্মকর্তা খলিলুর রহমান বলেন, হাতিটি সিরাজগঞ্জের চরা লে অবস্থানকালে ঢাকা থেকে চার সদস্যের টিম এসে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে চলে যান।

বিষয়টি ভারতীয় বন বিভাগকে বলা হয়েছে। হাতিটি উদ্ধার করতে ভারতীয় বন কর্মকর্তারা বাংলাদেশে রওনা হয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মিজানুর রহমান বলেন, স্থানীয় জান-মালের নিরাপত্তা ও আতঙ্কিত লোকজনকে সচেতন করতে ঘটনাস্থলে পুলিশ কাজ করছে। এছাড়া হাতিটির খাদ্য ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে চেষ্টা চালানো হচ্ছে

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View