যে অসাধারণ কীর্তি গড়েছেন বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটারের

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৮, ২০১৬ at ৯:৫৯ অপরাহ্ণ

al almin 123

শ্রীলঙ্কার ধনঞ্জয় ডি সিলভা যখন ব্যাট হাতে নামলে দলের চার ব্যাটসম্যান তার আগে ফিরে গেছেন। দলের রান তখন মাত্র ৪৮। দলের এমন বিপদে সাদা পোশাকে নিজের রানের খাতা খুললেন ছয় দিয়ে। নাম উঠে গেল রেকর্ড বইয়ে।

মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা টেস্ট ম্যাচেই মাত্র অভিষেক হলো ধনঞ্জয়ের। কিন্তু ক্রিকেট ইতিহাসে ছয় দিয়ে টেস্ট ক্যারিয়ার শুরু করাদের মধ্যে তিনি নবম। কিন্তু বলতে পারেন এই নয় জনের মধ্যে কোন দেশের পাল্লা সব থেকে ভারি? বাংলাদেশের।

হ্যা, নয় জনের মধ্যে তিনজনই আছেন বাংলাদেশের। সাদা পোশাকে অভিষেকের দিনেই রেকর্ড বইয়ে নাম তুলেছেন পেসার সফিউল ইসলাম, উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জহুরুল ইসলাম অমি ও পেসার আল আমিন হোসেন।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অভিষেক হয় শফিউলের। ২০১০ সালে ভারতের বিপক্ষে সে ম্যাচে স্পিনার অমিত মিশ্রকে ছয় হাঁকিয়ে শুরু করেন তার টেস্ট ক্যারিয়া। তবে পরের বলেই আউট হয়ে যান তিনি। ২০১৪ সালে শেষ টেস্ট খেলেন সফিউল।

একই বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক হয় জহুরুল ইসলামের। তবে প্রথম ইনিংসে কোন রান না করেই ফিরতে হয় তাকে। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৩ রান করার পথে রানের খাতা খুলেছিলেন গ্রায়েম সোয়ানকে ছক্কা মেরে। ২০১৩ সালের পড়ে আর টেস্ট খেলেননি তিনি।

২০১৪ সালে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কার স্পিনার রঙ্গনা হেরাথকে ছক্কা হাঁকিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের প্রথম রান করেছিলেন আল-আমিন হোসেন। সেই ইনিংসে ওই ৬ রানেই অপরাজিত ছিলেন তিনি।

ছয় দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করার এই কীর্তি প্রথম গড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যারিক ফ্রিম্যান। ১৯৬৮ সালে ব্রিসবেনে ভারতের বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টে ফ্রিম্যান রানের খাতা খুলেছিলেন ছক্কা মেরে।

এ তালিকায় আরো আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কার্লসলি বেস্ট, জিম্বাবুয়ের কেইথ ড্যাবাঙ্গা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডেল রিচার্ডস, নিউজিল্যান্ডের মার্ক ক্রেইগ।

এ সম্পর্কিত আরও