ঢাকা : ২৮ জুন, ২০১৭, বুধবার, ১১:৪১ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

বাংলাদেশ ভ্রমন সহজ করতে আসছে ‘ট্র্যাভেল অ্যাপস’

bd tr


বেসমারিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দেশের পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সব বিভাগীয় কমিশনারকে বিশেষ ধরনের অ্যাপস তৈরির নির্দেশ দিয়েছে সরকার। পর্যটকদের সুবিধার্থে গুগল ম্যাপের সঙ্গে সংযুক্ত করে মোবাইল সেটে ব্যবহার উপযোগী অ্যাপস তৈরি করা হবে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের তৃতীয় দিনের অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, এরই মধ্যে বরিশাল বিভাগ জেলার পর্যটন সম্ভাবনাময় স্থান চিহ্নিত করে এমন একটি অ্যাপস বানিয়েছে বলে সভায় জানিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক। এতে পর্যটকরা সহজেই ওই বিভাগের পর্যটন স্পট সম্পর্কে জানতে পারবেন।
মন্ত্রী বলেন, সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলা দেশের পর্যটন শিল্পে কোনো প্রভাব ফেলবে না। ইতালীয় নাগরিক তাবেলা সিজার ও জাপানি নাগরিক কোনিও হোসি নিহত হওয়ার পর পর্যটন ধসের যে আশঙ্কা করা হয়েছিল, তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। ওই বছর ১০ হাজার বিদেশি পর্যটক বেশি এসেছিলেন। এবারও সব আশঙ্কা ভুল বলে প্রমাণিত হবে। মেনন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গি হামলা কেবল বাংলাদেশের সমস্যাই নয়Ñ ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ও জাপানেও এ ধরনের হামলা হয়েছে। তিনি বলেন, অভ্যন্তরীণ পর্যটন সম্ভাবনা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য প্রতি জেলায় পর্যটকদের তথ্য প্রাপ্তি নিশ্চিতের জন্য পর্যটন তথ্য কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যেসব পর্যটন কেন্দ্রর সঙ্গে সংযোগ সড়ক নেই, পর্যায়ক্রমে তা করা হবে। বিমানবন্দর, পর্যটন কেন্দ্র এবং রিসোর্টগুলোর নিরাপত্তা বাড়াতে মালিক কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। টুরিস্ট পুলিশের সক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। ডিসিরা আকাশ যোগাযোগ বাড়াতে এবং অবকাঠামো উন্নয়নে সরকারকে উদ্যোগ নেয়ার সুপারিশ করেছেন বলেও মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান।
মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অপরিচিত গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোকে জনসম্মুখে তুলে আনার জন্য ডিসিদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। বাংলাদেশে বর্তমানে ঐতিহ্যবাহী ৭২৮টি স্থাপনা রয়েছে। এর মধ্যে অনেকগুলো পরিচিতি পেলেও এখনও অন্ধকারে রয়েছে বেশ কয়েকটি। তিনি বলেন, যেসব পর্যটন আকর্ষণীয় স্থান ও স্থাপনা এখনও দৃষ্টির আড়ালে রয়ে গেছে, সেগুলোকে জনসম্মুখে তুলে আনতে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। এছাড়া নিঝুম দ্বীপ, ভোলার মনপুরা ও চর কুকরি মুকরি, নেত্রকোনার সুসং-দুর্গাপুর, বরিশাল-পিরোজপুরের ভাসমান হাট পর্যটকদের আকৃষ্ট করছে। এসব এলাকায় অবকাঠামোগত ও যোগাযোগ ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব পাঠাতে ডিসিদের অনুরোধ করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

কীভাবে বেঁচে ফিরলাম বলতে পারছি না :- রাজ্জাক

স্পোর্টস ডেস্ক:- ‘কীভাবে বেঁচে গেছি, জানি না। এ রকম দুর্ঘটনা হলে মানুষ বাঁচতে পারে ভাবলে …

আপনার-মন্তব্য