Mountain View

মওকুফ হচ্ছে ট্রাভেল এজেন্টদের ভ্যাট

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৯, ২০১৬ at ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

tr


trচলতি অর্থবছরের (২০১৬-১৭) বাজেটে ট্রাভেল এজেন্টদের ওপর ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে। নানা ইস্যুতে ধুঁকতে থাকা এ খাতে এতে চাপ আরও বেড়েছে বলে দাবি করছেন সংশ্লিষ্টরা। মন্দাভাব এবং চাপ বাড়তে থাকলে অনেকেই ব্যবসা গুটিয়ে নিতে বাধ্য হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। বিষয়গুলো অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের দৃষ্টিতে এনেছে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব)। সংগঠনের পক্ষ থেকে এ খাতে আরোপিত ভ্যাট মওকুফের দাবি জানানো হয়েছে। বিষয়টি আমলে নিয়ে আবদুল মুহিতও এ খাতে ভ্যাটের পরিবর্তে চার্জ বাড়ানো যায় কিনাÑ তা নির্ণয় করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
সূত্র জানায়, পর্যটন খাতে মন্দাভাব চলছে। সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গি হামলা এবং জনশক্তি রফতানিতে ভাটা এর অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। বেশ কয়েক বছর ধরেই দেশের অন্যতম প্রধান রফতানি খাত জনশক্তি রফতানিতে চলছে ভাটা। বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্য ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মালয়েশিয়ায় সরকারি পর্যায়ে দক্ষ ও অদক্ষ শ্রমিক পাঠানো পুরোপুরি বন্ধই আছে। আবার জনশক্তি পাঠানোর ক্ষেত্রে নানা দেশও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে ইরাক, সিরিয়া, লিবিয়ায় জনশক্তি পাঠানো এখন বন্ধ রয়েছে। এদিকে আবার সাম্প্রতিককালে জঙ্গি হামলা ও তাদের উত্থান জনশক্তি রফতানি এবং পর্যটন খাতে ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলছে। বিশেষ করে ট্রাভেল এজেন্সিগুলোর ওপর এর প্রভাব পড়ছে। এসব বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে লেখা চিঠিতে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব) বলেছে, দেশের টিকিট বিক্রি ৭০ শতাংশ জনশক্তি রফতানির ওপর নির্ভরশীল। বর্তমানে জনশক্তি রফতানি উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পাওয়ায় ট্রাভেল এজেন্সিগুলোর ব্যবসাও কমেছে। এমনকি ট্রাভেল ব্যবসা কমে যাওয়ার কারণে এরই মধ্যে অনেক এজেন্সিও বন্ধ হয়ে গেছে।
ওই চিঠিতে আরও বলা হয়, চলমান বাজার প্রতিযোগিতায় টিকিট বিক্রি থেকে ট্রাভেল এজেন্টরা যে কমিশন পায়, তার সিংহভাগ কমিশনই ছাড় দিয়ে টিকিট বিক্রি করা হয়। অর্থাৎ একটি টিকিট বিক্রি করে শুধু ভাড়ার ওপর সর্বোচ্চ ১ থেকে ২ শতাংশ কমিশন পাওয়া যায়। আর টিকিটের সঙ্গে আনুষঙ্গিক ট্যাক্স ও ফির ওপর কোনো ধরনের কমিশন পাওয়া যায় না। এমনকি কয়েকটি এয়ারলাইন্স কমিশন না দিয়ে শুধু নিট ফেয়ারে টিকিট বিক্রি করছে। চিঠিতে এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে ট্রাভেল এজেন্সিদের ওপর ভ্যাট প্রত্যাহারের আবেদন জানানো হয়েছে।
অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সাম্প্রতিককালে পর্যটন খাতে চলমান মন্দার বিষয়টি অর্থমন্ত্রীকেও ভাবাচ্ছে। তাই তিনি এ ব্যাপারে করণীয় ঠিক করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন। এক নোটে মন্ত্রী লেখেন, ভ্যাট আরোপ না করে চার্জ বাড়ানো যায় না?
সূত্র জানায়, মন্ত্রীর নির্দেশনা অনুসারে অর্থ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করেছে। সব বিষয় পর্যালোচনা করে এনবিআর থেকে একটি মতামত পাঠানো হবে। এনবিআরের মতামতের ওপর ভিত্তি করেই ট্রাভেল এজেন্টদের চার্জ নির্ধারণ করা হতে পারে।

এ সম্পর্কিত আরও

no posts found

কৃষি, অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

no posts found
  • কৃষি, অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর →
  • Mountain View