Mountain View

ফাঁকা ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার

প্রকাশিতঃ জুলাই ৩০, ২০১৬ at ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ

kara


কেরাণীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুরে নতুন চালু হওয়া ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে শুক্রবার নেওয়া হয় ঢাকার বন্দিদের। কেরাণীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুরে নতুন চালু হওয়া ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে শুক্রবার নেওয়া হয় ঢাকার বন্দিদের। দুইশ বছরের পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সাড়ে ছয় হাজার বন্দির সবাইকে নেওয়া হল নতুন চালু হওয়া কেরাণীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুর কারাগারে।

শুক্রবার রাত ৯টা ৫০ মিনিটে সর্বশেষ ছয়টি প্রিজন ভ্যানে ১৮৪ জন কয়েদিকে কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে নেওয়া হয়। এর মধ্য দিয়ে ঘটনাবহুল নাজিমউদ্দিন রোডের এই কারাগারের ইতি টানা হলো। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবির বলেন, “সারা দিনে ৬ হাজার ৫১১ জন কারাবন্দিকে নতুন কারাগারে স্থানান্তর করা হলো।”

তিনি আরো বলেন, “দুদিনে নেওয়ার কথা ছিল বন্দিদের। তবে আমাদের কাজের অগ্রগতি বেশি হওয়ায় একদিনের মধ্যেই স্থানান্তর কাজ শেষ করে ফেললাম।” কেরাণীগঞ্জে নতুন কারাগারে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের বন্দিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন কর্মকর্তারা। কারা অধিদপ্তরের ডিআইজি (প্রিজন) এ কে এম ফজলুল হক জানান, সকাল থেকেই কেরাণীগঞ্জের নতুন কারাগারে বন্দিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন ঊর্ধ্বতন কারা কর্মকর্তারা।

কারা-মহাপরিদর্শক সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন  জানান, কারাগারে রান্নার কাজের জন্য বৃহস্পতিবার ৫০ জন বন্দিকে স্থানান্তর করা হয়। নতুন কারাগারে কিছু নির্মাণ ত্রুটি দেখা গেলেও একটি কমিটি করে চার মাসে সেসব ত্রুটি সারানো হয়েছে বলে জানান তিনি। কারা-মহাপরিদর্শক বলেন, জেল সুপার ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের কিছু আবাসন সমস্যা ছাড়া ওই এলাকায় আর কোনো সমস্যা নেই। কারাগারের আশপাশে কোনো স্থাপনা করতে দেওয়া হবে না।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের মতো আর যাতে কোনো সিন্ডিকেট করে ছোট স্থাপনা (চা দোকান, ঝুপড়ি দোকান) করতে না পারে তা নিশ্চিত করা হবে। কারা কর্মকর্তারা জানান, নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রায় আট হাজার বন্দি ছিলেন এতোদিন। তাদের মধ্যে নারী বন্দি এবং জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও শ্রেণিপ্রাপ্ত বন্দিদের আগেই কাশিমপুর কারাগারে সরিয়ে নেওয়া হয় বলে ইফতেখার উদ্দিন জানান।

এ সম্পর্কিত আরও