Mountain View

বন্ধ হচ্ছে না সাকিবের রেস্টুরেন্ট

প্রকাশিতঃ জুলাই ৩০, ২০১৬ at ২:৩৯ অপরাহ্ণ

Shakib-Al-Hasan-

গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার পরে দেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় নাগরিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে গুলশান, বনানী ও বারিধারার বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এই অবৈধ স্থাপনার তালিকায় বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার ও বর্তমানের সীমিত ওভারের সহ অধিনায়ক অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের রেস্টুরেন্ট সাকিব’স- এর নামও উল্লেখ করা হয়েছিল। তবে এই রেস্টুরেন্ট বন্ধ হওয়ার কোন সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ।

সাকিবের মালিকানাধিন সাকিব’স বনানীর ১১ নম্বর রাস্তার ৪৮ নম্বর ভবনে অবস্থিত। এই রেস্টুরেন্টটি বানিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত বলে এটি বন্ধ হওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ সরকারের আদেশ অনুযায়ী আবাসিক এলাকা ও আবাসিক এলাকা সংলঘ্ন এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ এই জানান তাদের আইনগত কোন সমস্যা নেই।

সাকিবের রেস্তোরাঁর ম্যানেজার এ কে এম আলী হোসেন রাজু জানিয়েছেন, ‘আমরা শুনেছি গুলশান, বনানী ও বারিধারার আবাসিক এলাকার অবৈধ স্থাপনা বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কিন্তু আমাদের রেস্তোরাঁ তো বাণিজ্যিক এলাকায়। তাই আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

তা ছাড়া ব্যবসা পরিচালনার জন্য সরকারি এবং আইনগতভাবে সব রকম অনুমোদন নেওয়া আছে তাদের, এমনটাও জানিয়েছেন আলী হোসেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের এই রেস্তোরাঁ পরিচলনার জন্য সরকারের কাছ থেকে সব রকম অনুমোদন নেওয়া আছে। আমাদের রেস্তোরাঁর ভবনটি ২০০৮ সালে বাণিজ্যিক অনুমোদন পেয়েছে। তা ছাড়া রেস্তোরাঁ বন্ধের কোনো নোটিশ এখনও পাইনি আমরা। তাই আমি মনে করি, এটা আমাদের বিরুদ্ধে এক রকম গুজব।’

জানিয়ে রাখা ভালো, গুলশান, বনানী ও বারিধারার আবাসিক এলাকায় অনুমোদিত ৫৫২টি অবৈধ প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ করার জন্য তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। স্থাপনাগুলোর মধ্যে রেস্তোরাঁর সংখ্যাই সর্বাধিক। এর সংখ্যা ৩৪২টি। এ ছাড়া আবাসিক হোটেল ও রেস্টহাউসের সংখ্যা ৬২টি, বার ১৬টি, স্কুল ৫৬টি, কলেজ ৩টি, বিশ্ববিদ্যালয় ২৩টি ও হাসপাতাল ৫০টি।

এ সম্পর্কিত আরও