ঢাকা : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, শনিবার, ৭:৪৩ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
চলছে স্প্যানের লোড টেস্ট দৃশ্যমান হতে চলেছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হতে পারে! ১৭ বছর বয়সী আফিফ নেট থেকে মাঠে অত:পর গেইলদের গুড়িয়ে দিলেন (ভিডিও) রংপুর জেতায় ছিটকে গেলো কুমিল্লা-বরিশাল আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইরাকে নিরাপত্তা বাহিনীর ১৯৫৯ সদস্য নিহত দুটি নৌকা, ২২ রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠাল বিজিবি অন্ধকার পেরিয়ে যেভাবে আলোতে সাইদুল, জানুন সেই বিশ্ব জয়ের গল্প প্রতিবন্ধীদের সাথে নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে : প্রধানমন্ত্রী রামগঞ্জে ১১টাকার জন্য স্কুলছাত্রকে খুঁটিতে বেঁধে নির্যাতন রোহিঙ্গাদের সহায়তা দেয়ার অনুমতি চাচ্ছে জাতিসঙ্ঘ : সাড়া দিচ্ছে না সরকার
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

বাংলাদেশের মতো স্বাধীন দেশে মানুষ জিম্মাব্যস্থায় দিন কাটাচ্ছে

bd

তাজুল ইসলামঃ বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ । এদেশ স্বাধীন করতে ত্রিশলক্ষ শহীদের বুকের তাজা রক্তের বিনিময়ের পাশাপাশি প্রায় ত্রিশ হাজার বীরঙ্গনা মায়ের ইজ্জ্বত বির্সজন দিতে হয়েছে । তবুও তারা মাথা নথ করেনি পশ্চিম পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর কাছে, মাথা নথ করেনি দেশীও জাত ভাই রাজাকার-আলবদরদের কাছে ।

তারা সবকিছু বির্সজন দিয়ে হলেও অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে একটি স্বাধীন ভূখন্ড , অর্জন করেছে সবুজের বুকে উদয়মান রক্তিম লাল সূর্য্য সম্বলীত একটি জাতীয় পতাকা ও মায়ের মুখে প্রথম শোনা মাতৃভাষা বাংলা । তারা চেয়েছিল বাংলাদেশের মানুষ ভবিশ্যতে শান্তিতে খাবে ঘুমাবে ।

কিন্তু এতো কিছুর বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের এমন অবস্থা হবে এটাকি কখনো তারা ভেবেছিল ? ভেবেছিল কি পশ্চিম পাকিস্তানের শোষনের মতো বাংলাদেশে আবার অরাজকতা সৃষ্টি হবে । ভাবেনি বাংলাদেশ আবার পূর্বের মতো হোক । কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশের মানুষ সেই পূর্বের ন্যায় একটি গোষ্টির কাছে জিম্মাব্যস্থায় দিনাতিপাত কাটাচ্ছে।

না পাচ্ছে বুক খুলে চলতে , না পাচ্ছে মুখ খুলে কিছু বলতে । বাংলাদেশে বর্তমানে একটাই আতঙ্ক কখন যেন দুপায়া দত্ত নামের আজরাইল বুলেট নিয়ে সামনে দাড়ায় এবং প্রাণ নিয়ে চলে যায় । আর সেই আতঙ্ক দিনদিন বেড়েই চলছে! এতিমধ্যে তাদের দমনে সরকারিভাবে তৎপড়তা চললেও তবুও মানুষ নিরাপদ নয় ।

পৃথিবীরবুকে মসজিদের পরে সবচেয়ে শান্তির জায়গা হলো আপন মাটি আপন ঘর । আজ সেই ঘরেও যেন, কোনো নিরাপত্তা নেই , নেই জানমাল আত্মরক্ষা করার মতো সামান্যতম শক্তি । মানুষ নামের নরপশুরা রাতের আধারে ঘরে ঢুকে ঘুমান্ত মানুষের উপর বনের নিরুপায় পশু পাখির মতো নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করছে ।

কিন্তু এর শেষ কোথায় ? কে বা কারা এদের অর্থ ও সাহসদাতা ? এমনটাই প্রশ্নবৃদ্ধ ভুক্তভোগী মহলের । দেশের সরকার প্রধানের কাছে তাদের প্রাণের দাবি , তারা কিছুই চায়না , চায় পেট ভরে খেতে আর শান্তিমতো ঘুমাতে । এমনটাই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বগুড়া জেলার সুশীল মহলের পাশাপাশি সর্বস্তরের ভুক্তভোগী মহল ।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

a896917062962c0e21583a9bf02714c0-15

শীর্ষস্থান সহ শীর্ষ দশের বাংলাদেশেরই সাত কারখানা

পরিবেশবান্ধব শিল্পকারখানা স্থাপনে বাংলাদেশে একধরনের নীরব বিপ্লবই ঘটে গেছে। সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে শীর্ষ ১০–এ স্থান …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *