Mountain View

সরিষাবাড়ীতে বন্যায় ক্ষয় ক্ষতির পরিমান কয়েকশ কোটি টাকা

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৪, ২০১৬ at ৫:০৫ অপরাহ্ণ

জাহিদ হাসান (সরিষাবাড়ী জামালপুর) প্রতিনিধি জামালপুর:সরিষাবাড়ীতে এবারের বন্যার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান সরকারী ভাবে জানা না গেলেও কয়েকশ কোটি বলে জানা গেছে। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে গত কয়েকদিনে সরিষাবাড়ী উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ২২২টি গ্রামের মধ্যে অন্তত ১৪০টি গ্রাম পানির নীচে।

আর এতে পানি বন্ধি হয়ে পড়েছে প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ। সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্থ ইউনিয়ন ভাটারা, কামরাবাদ, সাতপোয়া, পোগলদীঘা, ডোয়াইল, আওনা ও পিংনা। এসব এলাকার মানুষের আগামী আমন মৌসুমর ধানের চারা, উপষী ফসল, লাই, মরিচ, পটল, বিভিন্ন শাক সবজি, পুকুরের মাছ সহ নানা জাতের ফসল একেবার বিনষ্ট হয়। যার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান কয়েকশ কোটি টাকা।

ডোয়াইল ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন রতন, ভাটারা ইউনিযনের চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন বাদল, পোগলদীগার চেয়ারম্যান সামস উদ্দিন সামস সহ অনেকেই জানান, আমার ইউনিয়নের মানুষের ফসলের যে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে তা নিরুপন করতে দু চারদিন সময় লাগবে। এদিকে ডোয়াইল ইউনিয়নের মহিলা ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আমেনা বেগম জানান, আমার ওয়ার্ডের মৎস্যচাষী আমিনুল ইসলাম, সেলিম মিয়া, লুৎফর রহমান ,আজগর আলী সহ অন্তত ২৫/২৬জন মৎস্যচাষীর প্রায় অর্ধ কোটি টাকার মাছ বানের পানিতে ভেসে গেছে।

এছাড়াও ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে রাজিব দিয়ার বালিয়া সহ অন্তত ৫/৬টি গ্রামের ফাতেমা, রহিমা, আঃ রশিদ, শুক্কুর, সুজা মিয়া, লালমিয়া, বাবু, ইউসুফ সুরুজ মিয়া,নজরুল ,চান মিয়া ও দুদু সহ ৩/৪শতাধিক কৃষকের। এদিকে পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড়ের কাউন্সিলর সোহেল রানা জানান, আমার ওযার্ডের মানুষের মুরগী ফার্ম ধান ক্ষেত ও নান উফসী ফসল সহ বিভিন্ন রকমের ক্ষতির পরিমান অপরিসীম। বন্যার প্রায় এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এসব এলাকায় সরকারী ভাবে কোন সাহয্য সহায়তা এসে পৌছায়নি।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View