Mountain View

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ধ্বংসের পথে

প্রকাশিতঃ আগস্ট ১২, ২০১৬ at ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ

received_1767857240137141রাইহান রাহী, সিনিয়র রিপোর্টার, বিডি টুয়েন্টি ফোর টাইম্স: এ দেশের দেয়ালে দেয়ালে যখন  “কেলোর কীর্তি” নামক ভারতীয় বাংলা ছবি মুক্তির  পোষ্টার শোভা পায় আর দেশের বিখ্যাত সব প্রেক্ষাগৃহে তা প্রদর্শিত হয় তখন আর বুঝতে বাকি থাকেনা যে আমাদের সাংস্কৃতিক দাসত্ব কতটা নগ্ন হয়ে উঠছে।  বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসে ৯০ দশকের শেষ ভাগ হতে ০৫/০৬ সাল পর্যন্ত সময়টা ছিলো একটা হতাশকর পরিস্থিতি।

 

মৌলিক গল্পের অভাব, অভিনেতাদের রুগ্ন দশা আর অশ্লীলতার অবাধ ছড়াছড়ি এফ ডি সি তথা দেশের চলচ্চিত্র শিল্পকে করে তোলে  মানুষের মাঝে অপাঙতেয়। তখন দেশের চলচ্চিত্র শিল্পকে বাঁচাতে ভারতীয় ছবি আমদানির চিন্তা করা হয়, কিন্তু চলচ্চিত্র বোদ্ধারা এর ভবিষ্যৎ কুফল ভেবে এ চিন্তা পরিহার করেন। যা পরবর্তীতে সঠিক সিদ্ধান্ত বলে পরিগনিত হয়।

 

এখন সময় টা ০৫/০৬ থেকে ভিন্ন! বাংলাদেশের চলচিত্রাঙ্গন তার ভগ্ন দশা কাটিয়ে উঠছে। নতুন প্রজন্মের উদ্যম,  আধুনিক প্রযুক্তি আর চলচ্চিত্র বিষয়ক উচ্চশিক্ষা বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পকে দিয়েছে নতুন প্রানের ছোয়া। মৌলিক গল্প, বৈচিত্রপুর্ন নির্মান আর সময়োপযোগী আধুনিকায়নের ফলে দেশের তরুন প্রজন্ম সহ চলচ্চিত্র প্রেমি মধ্যবিত্ত সমাজ আবার প্রেক্ষাগৃহাভীমুখি হচ্ছে।

 

ঠিক তখনই তামিল ফিল্মের গল্পের কপিরাইট কেনা কোলকাতার নির্মিত চলচ্চিত্র “কেলোর কীর্তি ” বাংলাদেশের হলগুলোতে পশ্চিম বঙ্গের সাথে একই সময়ে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে এবং তা প্রদর্শিত ও হচ্ছে। দেশের চলচ্চত্রাঙ্গনের নব জাগরনের এই মোক্ষম সময়ে এই অদূরদর্শী সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহে দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে করে তুলবে আরো বেশি নড়বড়ে আর ভঙ্গুর।

 

এই সিদ্ধান্তের ফল যে কতটা ভয়াবহ ভাবে দেখা দেবে তা সময়ই বলে দিবে। দেশের চলচ্চিত্র বোদ্ধা আর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সম্বিত ফিরে আসুক এই প্রত্যাশাই করছি সর্বান্তকরনে।

 

মোঃ তালহা

একজন চলচ্চিত্র প্রেমি

ও শিক্ষার্থী,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

এ সম্পর্কিত আরও

no posts found
Mountain View