Mountain View

বাংলাদেশে আসতে আপত্তি নেই অ্যান্ডারসনের

প্রকাশিতঃ আগস্ট ১৮, ২০১৬ at ১০:৩৬ অপরাহ্ণ

james anderson

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর আসতে এখনো ঢের বাকি। তবে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরের বেশ কিছু প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। এরই মধ্যে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দল এসেছে বাংলাদেশে। এর আগে ভারতও ঘুরে এসেছেন তাঁরা।

এই নিরাপত্তা দলের প্রতিবেদন যদি সবুজ–সংকেত দেয়, তাহলে বাংলাদেশ সফরে কোনো আপত্তি থাকবে না বলে জানিয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন।ইসিবির প্রতিনিধিদলে আছেন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ রেগ ডিকাসন ও ক্রিকেট অপারেশনস পরিচালক জন কার।

খেলোয়াড়দের সংগঠনের (পিসিএ) প্রতিনিধি হিসেবে আছেন ডেভিড লিদারডেল। এঁদের ওপর আস্থা আছে জানিয়ে অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘রেগ তাঁর কাজে দুর্দান্ত, গত ১০ বছর ধরেই তিনি আমাদের নিরাপত্তার ব্যাপারটি দেখছেন। পিসিএর ডেভিডও আছেন। তাঁরা দেশে ফিরে এলেই মতামত জানতে পারব। এই সফর নিয়ে কোনো সমস্যা থাকলে নিশ্চয়ই তাঁরা সেটা বলবেন। তাঁদের সামর্থ্যে আমাদের আস্থা আছে।’

সফর হবে কি না, এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার পুরো দায়িত্ব ইসিবির নেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি, ‘এই সিদ্ধান্ত খেলোয়াড়দের হাতে নেই, এটা থাকা উচিতও হবে না।’

২০০৮ সালে ইংল্যান্ডের ভারত সফরের সময়েই মুম্বাইয়ে সেই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছিল। অ্যান্ডারসন নিজে সেই বিভীষিকাময় অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে গেছেন। তবে সেই ঘটনার সঙ্গে এবারেরটি মেলানো যাবে না বলে মনে করেন তিনি, ‘এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন।

কারণ, এবার সফরের অনেক আগে ঘটনাটি ঘটেছে। ভারতে সেই ঘটনার সময় আমরা একতাবদ্ধ ছিলাম। সেই সফরের অভিজ্ঞতা আমাদের যাঁদের আছে, কেউ চাইলে তাঁদের কাছ থেকে অবশ্যই সাহায্য নিতে পারে। তবে দলের কেউ যদি এই সফরে যেতে অস্বস্তিতে থাকে, সে কোচ, অধিনায়ক বা ইসিবির কাউকে নিঃসন্দেহে বলতে পারে।’

এখন পর্যন্ত এই সফর বাতিল করা বা কেউ যাবে কি না, এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বোর্ডের পক্ষ থেকে খেলোয়াড়দের বলা হয়নি। তবে অ্যান্ডারসন স্বীকার করলেন, নিজেদের মধ্যে টুকটাক কিছু কথা তো হয়ই, ‘খেলোয়াড় হিসেবে আপনি যখন এমন কোথাও যাবেন, সেখানে কয়েক মাসের মধ্যে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটেছে, আপনি তো বিষয়টির ব্যাপারে খোঁজখবর নেবেনই। খেলোয়াড়দের মধ্যেও এ নিয়ে আলোচনা হবে।’

উল্লেখ্য দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলতে ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের উদ্দেশে উড়াল দেওয়ার কথা ইংল্যান্ডের।

এ সম্পর্কিত আরও