রিওতে সোনাজয়ী বাংলাদেশি মার্গারিতা ঢাকায় আসছেন!

প্রকাশিতঃ আগস্ট ২২, ২০১৬ at ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ

margarita_mamun_2008_620_409_100.JPG

রিও অলিম্পিকে রিদমিক জিমন্যাস্টিক্সে স্বর্ণপদক জয়ী মার্গারিতা মামুনের বাবা বাংলাদেশি আব্দুল্লাহ আল মামুন মেয়েকে দেশে নিয়ে আসার কথা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

বাংলাদেশি বাবা আর রুশ মার ঘরে জন্ম নেওয়া মার্গারিতা অলিম্পিক গেমসের পঞ্চদশ দিনে বাংলাদেশ সময় শনিবার গভীর রাতে ব্যক্তিগত অল আরাউন্ট ইভেন্টে সোনা জেতার পর সাংবাদিকদের বলেছেন, তার এই জয় দুই দেশের জন্য।

কিছুদিনের পরেই মার্গারিতাকে বাংলাদেশে আনবেন বলে তার বাবা মামুন কথা  দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার।

গতকাল (রোববার) এক ফেইসবুক পোস্টে তিনি
লিখেছেন, “ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ  জেতার দুই দিন পরে গত বছর এই সময়ে তাদের (মার্গারিতা ও তার পরিবার) সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করেছিলাম মস্কোর অদূরে।

“মামুন ভাই কথা দিয়েছেন, অলিম্পিকের পর মেয়েকে নিয়ে বাংলাদেশে আসবেন। তখন ‘বাংলার বাঘীনি’র জন্য ফুলের তোড়াটা নিশ্চয় আরও অনেক বড় হবে।”

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর গত বছর মস্কো সফরকালে ওই নৈশভোজে মার্গারিতার  সঙ্গে তোলা দুটি ছবিও ফেইসবুকে দিয়েছে তিনি।

মস্কোতে জন্ম নেওয়া মার্গারিতার বাবা আব্দুল্লাহ আল মামুন পেশায় মেরিন প্রকৌশলী, রাশিয়াতেই থিতু হয়েছেন  তিনি। মা সাবেক রিদমিক জিমন্যাস্ট
আন্নার কাছ থেকেই দীক্ষা পেয়েছেন  মার্গারিতা।

রিদমিক জিমন্যাস্টিক্সে রাশিয়ায় বেশ কয়েক বছর ধরে আলোড়ন তোলা মার্গারিতা ‘দ্য বেঙ্গল টাইগার’ নামে পরিচিত। তবে রিওতে শক্তি দিয়ে নয়, মার্গারিতা প্রতিপক্ষদের ঘায়েল করেন হুপ, বল, ক্লাব ও রিবন এই চারটি রুটিনে অনবদ্য ক্রীড়াশৈলী দেখিয়ে।

সোনা জিততে তিনি পেছনে ফেলেন ফেভারিট ও তিন বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্বদেশি ইয়ানা কুদ্রিয়াভৎসেভাকে।

পদক জয়ের পর তার প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশের কথাও উঠে আসে: “আমি এটা জেনে খুব খুশি যে বাংলাদেশের অনেক ভক্ত আমাকে সমর্থন করছে।”

আরো বলেন “আমি বাংলায় ১ থেকে ১০ পর্যন্ত গুণতেপারি। যখন ছোটো ছিলাম, আমার বাবা আমাকে বাংলা শেখাতেন; কিন্তু আমি সব ভুলে গেছি।”

এ সম্পর্কিত আরও