ঢাকা : ২০ অক্টোবর, ২০১৭, শুক্রবার, ৪:৪৭ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ / বিনোদন / চলে গেলেন দেশের টেলিভিশন নাটকের প্রথম অভিনেতা

চলে গেলেন দেশের টেলিভিশন নাটকের প্রথম অভিনেতা

প্রকাশিত :

বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও বর্ষীয়ান অভিনেতা ফরিদ আলীর মৃত্যুতে টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তিনিই ছিলেন দেশের টেলিভিশন নাটকের প্রথম অভিনেতা।

বিটিভির হাসির নাটক ত্রি রত্নতে অভিনয়ের মাধ্যমে ছোট পর্দায় আগমন ফরিদ আলীর। অভিনেতা ফরিদ আলীর চলচ্চিত্রে পদার্পন ১৯৬৬ সালে আমজাদ হোসেনের ‘ধারাপাত’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে। একে একে সংগ্রাম, গুণ্ডা, রংবাজ, ঘুড্ডি ও তিতাস একটি নদীর নামের মতো অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের মন জয় করে নেন তিনি।Zruw1vJOZ48i

ফরিদ আলীর বন্ধু ও সহকর্মী কেরামত মওলা বলেন, তিনি টেলিভিশনের প্রথম নাটকে অভিনয় করেছিলেন, খুবই সজ্জন প্রকৃতির মানুষ ছিলেন ফরিদ আলী।

ফরিদ আলী অভিনয় জগতে দেখিয়েছেন পারদর্শিতা। কৌতুক অভিনয়ে তিনি দর্শকমনে এখনও দাগ কেটে রয়েছেন। বিশেষ করে ‘টাকা দেন দুবাই যাব, বাংলাদেশে থাকবো না’ এই সংলাপটির সাথে যারা পরিচিত তারা এক বাক্যেই উচ্চারণ করবেন অভিনেতা ফরিদ আলীর নাম।

বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেন বলেন, ফরিদ আলী নেই এটা আমার বিশ্বাস হচ্ছে না, ৫৫ বছরের সম্পর্ক কীভাবে ভুলি। ওর অভিনয় সব কিছু আমার হৃদয়ে মণিকোঠায় থাকবে। আমার মৃত্যু না হলে ফরিদ আলীকে ভোলা সম্ভব না।

শুধুমাত্র অভিনয় নয়, নাটক লেখা ও নির্দেশনায়ও সিদ্ধহস্ত ছিলেন এই শিল্পী। তার নিজের লেখা প্রথম টিভি নাটক হলো-‘নবজন্ম’।

১৯৪৫ সালের ৭ এপ্রিল ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন ফরিদ আলী। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

সাইফকে প্রথম দেখায় কি বলেছিলেন কারিনা!

পতৌদির নবাব সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুর খান দুজনেই বলিউডের সফল তারকা। প্রেম করে …