ঢাকা : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, সোমবার, ৬:৪১ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

বিদ্যালয়ের জমি দখল ইস্যুতে উত্তাল মৌলভীবাজার।

received_1768904660047649

    ইমন খান, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, বিডিটোয়েন্টিফোরটাইমস :
    মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার বিশাল মাঠ থেকে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের জন্য ভবন তৈরী করতে ২০ শতক জায়গা দাবি করে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। ১৮৯১ সালে প্রতিষ্ঠিত মৌলভীবাজার মাধ্যমিক পর্যায়ের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ আজ মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। শুধু তাই নয়, এই বিদ্যালয়ের মাঠ জেলার সবচেয়ে বড় মাঠ হিসেবে বিবেচিত করা হয়।
    বিশাল এই মাঠের একেকদিকে বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় একেক ভবন রয়েছে। যেমন, একদিকে রয়েছে বিদ্যালয়ের এম. সাইফুর রহমান অডিটোরিয়াম, আরেকদিকে রয়েছে বিশাল হোস্টেল, প্রধাণ শিক্ষকের বাসভবন ও অন্ধ ছাত্রদের ছাত্রাবাস। এমনকি এই মাঠের মধ্যেই অবস্থিত মৌলভীবাজার জেলার ক্ষেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও শহীদদের স্বরণে স্মৃতিসৌধ, রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের গনকবর ও। এসবের মধ্যখানেও রয়েছে খেলাধুলার জন্য বরাদ্দকৃত বিশাল মাঠ।
    প্রধাণ শিক্ষকের বাসভবনের পেছন থেকে ছাত্রাবাস পর্যন্ত যে ২০ শতক জায়গা রয়েছে, সেই ২০ শতক জমি দখল নিয়েই শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ভবন নির্মাণ করতে চায়। মূলত এই ২০ শতক জায়গা সহকারি প্রধাণ শিক্ষকের বাসভবনের জন্য বরাদ্দ।
    সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ২৪ আগষ্ট, বুধবার সকাল ১০টায় মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা শহরের চৌমহনীতে বিশাল এক মানববন্ধনের আয়োজন করে। সহস্রাধিক উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় মৌলভীবাজারের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় মানববন্ধন। মানববন্ধনে বর্তমান ছাত্রদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন ছাত্রসহ অভিভাবক ও সচেতন জনসাধারণ। উক্ত মানবন্ধনে বক্তারা তাদের দাবি তুলে ধরেন। এই মাঠে বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় ভবন ছাড়া আর কোন ভবন নির্মান হতে দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন তারা। ছাত্রদের অধিকার রক্ষার্থে আন্দোলনের মাধ্যমে দাতভাঙ্গা জবাব দিতে তারা প্রস্তুত আছেন। আরেক ছাত্রনেতা ও উক্ত বিদ্যালয়ে মেধাবী প্রাক্তন ছাত্র আরিফ নেওয়াজ রফি বলেন, ‘এটি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন নয়, সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলন, ছাত্রদের অধিকার নিয়ে খেলা না করার আহবান জানান তিনি’। এছাড়া বক্তারা সরকারকে এই সিদ্ধান্ত থেকে অবিলম্বে সরে আসার আহবান জানান, পরবর্তী কর্মসূচি পরে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তারা।

    এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

shahid-minar-0-696x418

শহীদ মিনারের এ কেমন অবমাননা?

বহু আবেগ আর ত্যাগের বিনিময়ে বাঙালি জাতি পায় বাংলা ভাষার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি। ১৯৫২ সালের ভাষা …

Mountain View