ফেনীতে একদিনে পৃথক স্থান থেকে দুই লাশ উদ্ধার, গ্রেফতার১

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৩০, ২০১৬ at ৩:২৩ অপরাহ্ণ

ফেনীতে একদিনে দুটি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে পৃথক স্থান থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য আধুনিক ফেনী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে পুলিশ। এ হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সোমবার রাতে ফেনী সদর উপজেলার ফাজিলপুরে আব্দুল মুন্সী ঘাট এলাকায় নদীর পাশে নিয়ে নিজ ভাগিনা মনছুরু আলমকে  গলাকেটে হত্যা করে নুরুল আলম। অনেক খোঁজাখুজির পরও তাকে না পেয়ে সকালে নদীর পাশে ঝোঁপের মধ্যে মনছুরের লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে স্থানীয় বোগদাদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তার মৃদদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে। এসময় পুলিশ মামা ঘাতক নুরুল আলমকে গ্রেফতার করে। নুরুল আলম একই এলাকার আলী আহমদ সওদাগর বাড়ী (হানারগো বাড়ীর) মফিজের ছেলে। পিতা মারা যাওয়ার পর থেকে মনছুরের পরিবার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে নানার বাড়ীতে অবস্থান বসবাস করছে।
ফেনী পুলিশ সুপার রেজাউল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন , ঘটনা সঙ্গে জড়িত ঘাতক নুরুল আলমকে মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতার করা হয়েছে ।
এদিকে একই দিন সকালে ছাগলনাইয়া উপজেলার মহামায়া ইউনিয়নের এলনা পাথর এলাকা থেকে এক দিন মজুরের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  রোববার ওই এলাকার বকু মিয়ার বাড়ীতে কাজ করার জন্য চারজন দিন মজুরকে বদলা হিসাবে নেন বকু মিয়া। দুই দিন কাজ করার পর সোমবার বিকালে তিনজন দিনমজুর টাকা নিয়ে বাড়ী চলে যায়। সকালে ওই এলাকার একটি ধানী জমিতে অন্যজনের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে ছাগলনাইয়া থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আবদুর রহিম তার লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে বকু মিয়া পলাতক রয়েছে।
স্থানীয় মহামায়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শাহ গরীব হোসেন চৌধুরী বাদশা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এখন পর্যন্ত নিহতের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

এ সম্পর্কিত আরও