ঢাকা : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, শুক্রবার, ৫:৩৪ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

স্পিনার সংকট কাটাতে জাতীয় দলে ফিরছেন মোশারফ রুবেল!

Mosharraf-Hossain-Rubel

উত্থানের মাঝে যেন হঠাৎই স্পিন সংকটে পড়ে গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এক সাকিব আল হাসান ছাড়া পুরোদস্তর স্পিনার বাংলাদেশ দলে নেই বললেই চলে। ছিলেন আরাফাত সানি। তিনিও অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে নিষিদ্ধ আছেন। তার বিকল্পদের ওপরও ভরসা রাখতে পারছেন না নির্বাচকরা। সব মিলিয়ে স্পিন আক্রমণ নিয়ে নতুন করেই ভাবতে হচ্ছে।

আর নতুন এই ভাবনায় জায়গা করে নিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার মোশারফ হোসেন রুবেল। জাতীয় দল বা এইচপির কোনো কার্যতক্রমেই তিনি ছিলেন না তিনি। কিন্তু হঠাৎই জাতীয় দলের ক্যাম্পে ভেড়ানো হয়েছে রুবেলকে। তার এই সংযোজনে অনেকেই অনেকভাবে ভাবছেন। ধারণা করা হচ্ছে সাকিব আল হাসানের সঙ্গী হিসাবে দেখা যেতে অভিজ্ঞ এই স্পিনারকে।

সোমবার মিরপুরে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু তেমনই বললেন, ‘আমরা সাকিবের সঙ্গে একজন বাঁহাতি স্পিনার চেয়েছিলাম। তাই রুবেলকে ক্যাম্পে ডেকেছি। জাতীয় দলের হয়ে সে পরবর্তী প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। সেখানে সে নিজেকে মেলে ধরতে পারলে আবার হয়তো তাকে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেখা যেতে পারে।’

আরাফাত সানি থাকলে এ সুযোগ হয়তো হতো না রুবেলের। কিন্তু সানিই রয়েছেন অন্ধকারের মধ্যে। দ্বিতীয়বারের জন্য কবে পরীক্ষা দিতে যাবেন সেটাও নিশ্চিত হয়নি। কিন্তু ঘনিয়ে আসছে আফগানিস্তান সিরিজ। এরপরই আবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ। সব মিলিয়ে তাই রুবেলকেই বিবেচনায় নিয়েছেন নির্বাচকরা।

গেল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ব্যাট হাতে ৩৫০ রান করার পাশাপাশি ১২টি উইকেটও নেন দারুণ ছন্দে থাকা মোশারফ রুবেল। তবু তাকে জাতীয় দলের ৩০ জনের ক্যাম্পে নেয়া হয়নি। এমনকি এইচপির ২৫ সদস্যের দলেও জায়গা হয়নি তার। পরবর্তীতে এইচপির ক্রিকেটার সংখ্যা ৫৫ তে নিয়ে গেলে সুযোগ পান রুবেল।

এবার সেখান থেকে সোজা জাতীয় দলের ক্যাম্পে। আর প্রস্তুতি ম্যাচে নিজেকে প্রমাণ করতে পারলে আট বছর পর আবারো জাতীয় দলে দেখা যেতে পারে তাকে। অবশ্য রুবেলের জায়গায় নাকি সোহরাওয়ার্দী শুভকে ভেবেছিলেন কোচ ও নির্বাচকরা। কিন্তু অনুশীলনে সবাইকে সন্তুষ্ট করতে পারেননি সোহরাওয়ার্দী।

বাংলাদেশের হয়ে তিনটি ওয়ানডে খেলা মোশারফ রুবেল ভারতের নিষিদ্ধ লিগ ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগে (আইসিএল) অংশ নিয়ে জাতীয় দলকে ছিটকে পড়েন। এরপর আর ফেরা হয়নি। মাঝে বিপিএলে ফিক্সিং কান্ডেও জড়িয়েছে তার নাম। যদিও নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করেন তিনি। এবার প্রমাণের পালা জাতীয় দলের দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে (৩ ও ৬ সেপ্টেম্বর)। যে দুটি ম্যাচ নির্ধারণ করে দিতে পারে তার ভাগ্যও।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

বিপিএল -১৬ এর ফাইনালের নায়ক কে হবেন?

আসরের যোগ্য দল হিসেবেই বিপিএলের ফাইনালে উঠেছে ঢাকা ডায়নামাইটস ও রাজশাহী কিংস। এটা বলা বাহুল্য। …

Mountain View