Mountain View

অক্টোবর-ডিসেম্বরের মধ্যে রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণ প্রক্রিয়া

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৩১, ২০১৬ at ৭:৩৩ অপরাহ্ণ

robi

আগামী অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে বেসরকারি দুই মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড (রবি) ও এয়ারটেল বাংলাদেশ লিমিটেডের (এয়ারটেল) একীভূতকরণ প্রক্রিয়া শেষ হবে বলে আশা করছে রবি।

হাইকোর্ট বুধবার (৩১ আগস্ট) দুই অপারেটরকে একীভূত হতে অনুমোদন দেয়।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রবি’র চিফ করপোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার (সিসিপিও) মতিউল ইসলাম নওশাদ এক বিবৃতিতে বলেন, উচ্চ আদালত রবি ও এয়ারটেলের একীভূতকরণের পক্ষে রায় দেওয়ায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদ (আজিয়াটা) ও ভারতী এয়ারটেল অব ইন্ডিয়া (ভারতী) বাংলাদেশে তাদের কোম্পানিগুলোকে একীভূতকরণের লক্ষ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি সই করেছিল। ওই চুক্তির ভিত্তিতেই এ অনুমোদন দিয়েছেন উচ্চ আদালত।

রবি’র সিসিপিও বলেন, উচ্চ আদালতের এ রায় বাংলাদেশে একীভূতকরণ প্রক্রিয়ার ইতিহাসে মাইলফলক হয়ে থাকবে। উচ্চ আদালতের দেওয়া নির্দেশনা এবং একীভূতকরণের চুক্তিতে উল্লেখিত আইনসম্মত শর্তাবলী পূরণ সাপেক্ষে একীভূতকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

‘সেই হিসেবে ২০১৬ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে (অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর) এ একীভূতকরণ প্রক্রিয়া শেষ করা সম্ভব হবে আমরা আশা করছি।’

বিবৃতিতে আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদ, ভারতী এয়ারটেল, এনটিটি ডকোমো ও তাদের স্টেক হোল্ডারদের পক্ষ থেকে একীভূতকরণের পুরো প্রক্রিয়া জুড়ে অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতার জন্য ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন, সব স্টেকহোল্ডার ও গণমাধ্যমের প্রতি রবি ও এয়ারটেল বাংলাদেশ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানায়।

‘আমাদের বিশ্বাস, দেশের টেলিযোগাযোগ খাতে গঠনমূলক ও সুস্থ প্রতিযোগিতা নিশ্চিত করতে এ একীভূতকরণ নিশ্চিতভাবে একটি তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ হয়ে থাকবে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন পূরণে আমাদের অংশগ্রহণকে আরো জোরালো করতে এ অনুমোদন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। একটি গ্রাহককেন্দ্রিক কোম্পানি হিসেবে দেশজুড়ে বিস্তৃত নেটওয়ার্কের আওতায় আরো বেশি সংখ্যক গ্রাহকের হাতে টেলিযোগাযোগ সেবা পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ পেয়ে আমরা আনন্দিত।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View