ঢাকা : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, সোমবার, ২:২৩ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

ইংল্যান্ডকে ভয় পাচ্ছে না বাংলাদেশ

পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে নিয়মিতই সংহার মূর্তিতে আবির্ভূত হচ্ছেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। ট্রেন্ট ব্রিজে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তানের বোলারদের যেভাবে তুলাধোনা করে রেকর্ড ৪৪৪ রান করেছে তারা, সেটি নিশ্চয়ই বড় একটা বার্তা বাংলাদেশের জন্য।

অক্টোবরে তিনটি ওয়ানডে ও দুই টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসছে ইংল্যান্ড। ইংলিশরা যদি ৪০০-এর বেশি রান করে, তামিম-সাকিবরা পারবে সেটির জবাব দিতে? বাংলাদেশ অবশ্য ৩০০-এর বেশি রান তাড়া করে জিতেছেই তিনবার। ২০১৫ বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৩১৮ রান টপকে জিতেছিল বাংলাদেশ। ওটাই বাংলাদেশের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড। ওই ম্যাচে ৯৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল। ২০১৩-এর নভেম্বরে ফতুল্লায় ৩০৭ রান তাড়া করে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

২০০৯ সালের আগস্টে বুলাওয়েতে বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের দেওয়া ৩১২ রান টপকে গিয়েছিল তামিমের ১৫৪ রানের অসাধারণ এক ইনিংসের সুবাদে। রানের পাহাড় কীভাবে টপকাতে হয়, তামিমের সেটি অল্পবিস্তর জানা আছে। ইংল্যান্ড যদি বাংলাদেশের বিপক্ষে বড় লক্ষ্য ছুড়ে দেয়, পারবে বাংলাদেশ? বাস্তবতা মেনেই উত্তর দিচ্ছেন বাঁহাতি ওপেনার, ‘এটা আসলে বলা কঠিন। ৪৪৪ রান বিশাল ব্যাপার। যদি আমরা ৩৬০-৩৭০ তাড়া করে জিততাম, আমার উত্তরটা অনেক বাস্তবসম্মত হতো। আমরা ৩০০ রানই তাড়া করছি দু-তিনবার। তাও সেটা ৩১৫-৩২০ রানের মধ্যে ছিল। ৩৫০ রানও কখনো তাড়া করিনি।’

আন্তর্জাতিক আঙিনায় মারমুখী ব্যাটিংয়ে নিজেকে আলাদাভাবে চিনিয়েছেন সাব্বির রহমান। তাঁর অভিধানে যেন ‘অসম্ভব’ বলে কোনো শব্দ নেই! ইংল্যান্ডকে ভয় পাচ্ছেন না বাংলাদেশ দলের এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান, ‘ঘরের মাঠে সবাই বাঘ। ইংল্যান্ড নিজেদের মাটিতে ভালো খেলছে। আমাদের এখানে নিশ্চয়ই ভিন্ন উইকেট থাকবে। তারা ৪০০-৫০০ করলেই বা কী! ওটা তাড়া করার সামর্থ্য আমাদের ব্যাটসম্যানের আছে।’

শক্তিশালী দলের বিপক্ষে বড় রান তাড়া করে বাংলাদেশের জয়ের পেছনে বড় ভূমিকা আছে সৌম্য সরকারের। গত বছরের এপ্রিলে সৌম্যর দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের ২৫০ রান অনায়াসে টপকে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকাকে টানা দুই ওয়ানডেতে ৭ ও ৯ উইকেটে হারানোর পেছনেও এই বাঁহাতি ওপেনারের অবদান বিশেষ স্মরণীয়। নির্ভীক ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ করা সৌম্য একমত সাব্বিরের সঙ্গে, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে একটা সময় আমরা ৭, ৮ কিংবা ৯ উইকেটে হারতাম। এখন একই ব্যবধানে ওদের হারিয়ে দিই। ইংল্যান্ড যদি বিশাল রান করে, আমরা পারব না কেন?’

অবশ্য বাংলাদেশের নিচু ও মন্থর উইকেটে ৪০০ কিংবা এর বেশি রান ওঠা কঠিন। ইনিংসে সর্বোচ্চ রান উঠেছে ৩৭০, ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিল ভারত। ইনিংস গড়ে রান ২১২.০৩। তামিম তাই মনে করেন, বাংলাদেশে ‘হাই স্কোরিং’ ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনা কম, ‘আমাদের কন্ডিশনে ৪০০ রান করা কঠিন। অবশ্য পাকিস্তানের সঙ্গে ইংল্যান্ড ভালো খেলছে। এখানে খেলাটা হবে ভিন্ন, উইকেট-মাঠ ওদের মতো হবে না।’ তামিমের কথায় সায় দিচ্ছেন ২২ গজে তাঁর আরেক সঙ্গী ইমরুল কায়েস, ‘আমাদের এখানে গড়ে রানই হয় ২৫০। ৩০০ অনেক ভালো স্কোর। আমার মনে হয় না, ওই রকম রান হবে।’

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

asia_cup1

পাকিস্তানকে হারিয়ে ভারতের মেয়েরাই চ্যাম্পিয়ন

ভারতের মেয়েরা দাবিটা তুলতেই পারেন। বলতে পারেন, আগামীবার থেকে এশিয়া কাপের নাম হবে তাদের নামে! …

Mountain View