Mountain View

সাপাহারে পরকীয়া প্রেমের ঘটনায় স্বামীকে আইনের হাতে তুলে দিল স্ত্রী!

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৬ at ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ

Naogaon_720123863-4

মনিরুল ইসলাম,সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে পরকীয়া প্রেমের ঘটনায় স্বামীকে আইনের হাতে ধরিয়ে দিয়েছে স্ত্রী। জানা যায়, উপজেলার তিলনা রোডে দীর্ঘদিন যাবৎ রোজ বিউটি পার্লারের পরিচালনা করছিল মাসুদ রানা ও তার স্ত্রী মারুফা খাতুন। এরই সুত্র ধরে গত ৫ মাস আগে পার্শ্ববর্তী পোরশা উপজেলার বড়গ্রামের আঃ হাকিমের মেয়ে ফাহিমাকে বিউটিশিয়ানের প্রশিক্ষনের জন্য নিয়ে আসে মাসুদ। পরে জড়ে পড়ে তার সাথে পরকীয়ায়।

এ ঘটনা তার স্ত্রী জানতে পারলে তাকে এ ব্যপারে কারও কাছে না বলার জন্য হুমকি প্রদান করে। এবং অনেক সময় এ ব্যপারে কথাকাটাকাটি হলে তার স্ত্রীকে বেদম হারে মারপিট করে। শনিবার বিকাল চারটার দিকে ওই মেয়েকে নিয়ে মাসুদ ঘরের ভিতর প্রবেশ করে আপত্তিকর অবস্থা শুরু করলে তার স্ত্রী সহ্য করতে না পেরে ছিটকিনি লেগে দিয়ে স্থানীয়দের সাহয্যে তার স্বামীকে ইউয়িন পরিষদে সোপর্দ করে। পরে বিষয়টি চেয়ারম্যান আকবর আলী মিমংসার চেষ্টা করে। কিন্তু তার স্ত্রীর একটাই চাওয়া নারী লোভী ওই নরপশুর দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।

পরে মাসুদ ও ফাহিমাকে রাত সাড়ে আটটার দিকে থানায় সোপর্দ করেন চেয়ারম্যান। উল্লেখ্য যে মাসুদ রানা বিগত কয়েক বছর আগে বরিশালের ভোলা এলাকা হতে এসে পত্নীতলা উপজেলাধীন বাঁকরইল গ্রামে বসবাস শুরুর পরে প্রেম করে মারুফাকে বিয়ে করেছিল বলে জানা গেছে। ঘটনার ব্যপারে মাসুদের স্ত্রী মারুফার সাথে কথা হলে তিনি জানান, ‘ওই মেয়ের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ তার খারাপ সম্পর্ক রয়েছে। আমি একজন এতিম মেয়ে । আমার বাবা নেই। তাকে এ বিষয়ে বললে আমাকে তালাকের হুমকি দেয়। কিন্তু আজ আমার অসহ্য হওয়ায় আমি তাকে আইনের হাতে তুলে দিয়েছি। আমি এই নারী লোভী নরপশুর যথার্থ বিচার চাই’। এ ব্যাপারে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, তাদের দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা হয়েছে। এদের ২৯০ ধারায় মামলা দিয়ে কোর্টে প্রেরণ করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View