Mountain View

মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৫জন নিহত আহত২০

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৬ at ৬:০৫ অপরাহ্ণ

এম ডি,শামীম মির্জাপুর(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধিঃ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে মির্জাপুর উপজেলার ইচাইল নামক স্থানে শনিবার সকালে একটি যাত্রীবাহী বাস ও ইটভর্তি ট্রাকের সংঘর্ষে ৫জন নিহত ও কম পক্ষে ২০জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এসময় নিহতদের মধ্যে তিনজনের নাম পাওয়া গেছে। নিহতরা হলেন- কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার মমিনুল ইসলামের স্ত্রী ছালমা আক্তার (২৫), কুড়িগ্রামের রাজার হাট উপজেলার রহিমা (৩০) ও তার ছেলে বায়োজিদ (৭)।

শনিবার সকাল প্রায় সাতটার দিকে মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার ইচাইল নামক স্থানে এ দুর্ঘটনার পর যানচলাচল বন্ধ হয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে হাইওয়ে ও থানা পুলিশ গিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত বাস-ট্রাক রেকারের সাহায্যে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নিলে সকাল আটটার দিকে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

পুলিশ ও আহত যাত্রীরা জানান, কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাস ও টাঙ্গাইলগামী ইটভর্তি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে এক শিশু ও নারী নিহত হয়। আহত হয় কমপক্ষে ২০ যাত্রী। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানা ও হাইওয়ে পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে এক নারী ও এক পুরুষ নিহত হয়। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. দুলাল চন্দ্র পোদ্দার জনিয়েছেন।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানা অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, দুর্ঘটনার পর আহতদের উদ্ধার করে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত যান মহাসড়ক থেকে দ্রুত সরিয়ে নেয়ায় যানচলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. মাহাবুব হোসেন দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশ পরিবারের কাছে পৌঁছানো বাবদ ২০ হাজার ও আহতদের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা করে তাৎক্ষণিকভাবে অনুদান ঘোষণা করেছেন বলে মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাসুম আহমেদ জানিয়েছেন।

এ সম্পর্কিত আরও

আপনিও লিখুন .. ফিচার কিংবা মতামত বিভাগে লেখা পাঠান [email protected] এই ইমেইল ঠিকানায়
সারাদেশ বিভাগে সংবাদকর্মী নেয়া হচ্ছে। আজই যোগাযোগ করুন আমাদের অফিশিয়াল ফেসবুকের ইনবক্সে।