ঢাকা : ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, রবিবার, ৩:৫৩ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

যেসব ভারতীয় অস্ত্র পাকিস্তানের ভয়ের কারণ!

কাশ্মীরের উরিতে সেনাঘাঁটিতে ১৮জন ভারতীয় সেনা নিহতের ঘটনায় তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছ চির বৈরী দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে।

উরির ঘটনার প্রতিশোধ নিতে সরাসরি পাকিস্তানে আক্রমণের কথা বলাবলি হচ্ছে ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে। পাকিস্তানকে শিক্ষা দিতে ভারত সামরিকভাবে কতখানি সক্ষম তারও বিবরণ প্রকাশ হচ্ছে।

এরইমধ্যে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবেলা দশটি ভারতীয় অস্ত্রের ছবি প্রকাশ করে দাবি করছে এসব অস্ত্র পাকিস্তানের ভয়ের কারণ।

অস্ত্রগুলোর বিবরণ তুলে ধরা হলো

১. এএইচ-৬৪ডি অ্যপাচি লংবো ব্লক ৩ অ্যাটাক হেলিকপ্টার। সম্প্রতি এএইচ-৬৪ডি অ্যপাচি হেলিকপ্টারটি কেনা হয়েছে। এই হেলিকপ্টারটি ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক বিরাট অগ্রগতির সূচনা ঘটিয়েছে।

২. এই অ্যপাচির গতি হল ঘণ্টায় প্রায় ১৭১ মাইল। এর রোটর ব্লেডগুলি ১২.৭ মিলিমিটার গান ফায়ার প্রতিরোধকারী। এই হেলিকপ্টারে রয়েছে ৪টি এক্সটারনাল হার্ড পয়েন্ট।

৩. এসএউ-৩০ এমকেআই ফাইটার। ১৯৮০-এর দশকে রণকৌশলে বিবর্তন এনে দিয়েছিল এই ক্ষেপণাস্ত্র। এতে রয়েছে ১২টি হার্ড পয়েন্ট। মাউন্টিং ওয়েপন, সেন্সর এবং জ্বালানির ট্যাংক।

৪. এসএউ-৩০ এমকেআই-কে নিঃসন্দেহে পাকিস্তানের অন্য যেকোনও অস্ত্রের থেকে উৎকৃষ্ট বলাই যায়। এর রয়েছে এফ-১৬ ব্লক ৫০/৫২, যেখানে পাকিস্তানের রয়েছে ১৮টি।

৫. আইএনএস বিক্রমাদিত্য এয়ারক্র্যাফ্ট কেরিয়ার। আইএনএস বিক্রমাদিত্য হল একটি মডিফায়েড কিয়েভ-ক্লাস এয়ারক্র্যাফ্ট-বাহী জলযান, যা রাষ্ট্রীয় নৌবাহিনী ২০১৩ সালে লঞ্চ করে। পরে এই জাহাজটির গঠনগত ও কাঠামোগত পরিবর্তন করা হয়।

৬. আইএনএস ব্রিক্রমাদিত্য জাহাজটি ২৮২ মিটার দীর্ঘ এবং এটি ৪৪,০০০ টন ওজন বহন করতে সক্ষম। এছাড়াও এতে রয়েছে শক্তিশালী এয়ার উইঙ্গ।

৭. আইএনএস চক্র নিউক্লিয়ার অ্যাটাক সাবমেরিন। ৮০০০ টন ওজন বহনকারী এই ডুবোজাহাজটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া-ক্লাস নিউক্লিয়ারের মতোই বড়।

৮. আইএনএস চক্র যুদ্ধকালীন যে কোনও ঘটনার মোকাবিলা করতে সক্ষম। এই সাবমেরিনের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল ১৯৯৩ সালে, কিন্তু টাকার অভাবে মাঝখানে এর কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এর পর ২০০৪ সালে এর নির্মাণ আবার শুরু হয়।

৯. ভারতীয় নিউক্লিয়ার অস্ত্র। ভারতে প্রথম নিউক্লিয়ার অস্ত্র পরীক্ষা করা হয় ১৯৭৪ সালে। যার মধ্যে ছিল ১২ কিলোটন আকস্মিক বিস্ফোরণের ক্ষমতা।

১০. ভারতীয় নিউক্লিয়ার ওয়েপন, স্ট্র্যটেজিক ফোর্স কম্যান্ড-এর অধীনস্থ। এছাড়াও প্রথম মিসাইলবাহী সাবমেরিন ভারতের রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

রাশিয়ায় নগ্ন করা হচ্ছে নারীশ্রমিকদের!

রাশিয়াতে একটি খনিতে নারী শ্রমিকদের নগ্ন করে তল্লাশি করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, এই তল্লাশী …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *